free hit counter
বাংলাদেশ

৪০ হাজার টাকা ভাড়াতেও নৌকা পেলেন না অন্তঃসত্ত্বা

সিলেট ও সুনামগঞ্জের বন্যা পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ রূপ ধারণ করেছে। পানিবন্দি হয়ে পড়েছে দুই জেলার প্রায় ৪০ লাখ মানুষ। এমন পরিস্থিতিতে খাবার ও সুপেয় পানির জন্য তীব্র হাহাকার ও আর্তনাদ চলছে। পানি-স্রোত ভেঙে আশ্রয়ের খোঁজ করছে মানুষ। তবে প্রত্যন্ত অঞ্চলে আটকেপড়া মানুষকে উদ্ধার তৎপরতা মারাত্মকভাবে ব্যাহত হচ্ছে। সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় আছেন নারী, শিশু ও বৃদ্ধরা।

এরই মধ্যে শনিবার (১৮ জুন) দিনভর টানা ভারি বৃষ্টি এবং আগামী তিন দিনে অতিভারি বৃষ্টির পূর্বাভাসে জেলা দুটির বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি এবং ভয়ংকর হয়ে ওঠার আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।

এমন পরিস্থিতিতে আটকেপড়া অবস্থা থেকে উদ্ধার ও নিরাপদ আশ্রয়ে যাওয়ার জন্য সবচেয়ে প্রয়োজনীয় উপকরণ হচ্ছে নৌকা। কিন্তু প্রয়োজনীয় সংখ্যক নৌকার অভাব এবং আকাশচুম্বী ভাড়ার কারণে পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ হয়ে উঠেছে। অভিযোগ উঠেছে, নৌকার মালিক ও মাঝিরা নৌকার ভাড়া শতগুণ বাড়িয়ে দিয়েছেন!

মারুফ আহমেদ নামে এক ব্যক্তি তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে নিয়ে নিরাপদে সরিয়ে নেয়ার জন্য গ্রাম থেকে শহরে যেতে চান। কিন্তু ৪০ হাজার টাকা দিয়েও তিনি নৌকা ভাড়া করতে পারেননি।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গোয়াইনঘাট উপজেলার সালুটিকর থেকে কোম্পানীগঞ্জের তেলিখাল পর্যন্ত দূরত্ব ১০ কিলোমিটারের মতো। স্বাভাবিক সময়ে এই দূরত্বে নৌকা ভাড়া ৮০০ থেকে ১ হাজার টাকা। কিন্তু বর্তমানে মাঝিরা এই দূরত্বের জন্য ৫০ হাজার টাকা ভাড়ার দাবি করছেন এবং সেখানে ভাড়া নিয়ে দরকষাকষির কোনো সুযোগও দিচ্ছেন না তারা। সালুটিকর ঘাট থেকে জনপ্রতি আগে যেসব দূরত্বের ভাড়া ছিল ২০ থেকে ৫০ টাকার ভেতর, এখন তা ১ হাজার থেকে ১ হাজার ৫০০ টাকায় ঠেকেছে।

অন্যদিকে সিলেট শহর থেকে যারা ত্রাণ নিয়ে দুর্গতদের কাছে যেতে চেয়েছিলেন, শুধু নৌকা ভাড়ার কারণেই তারা সেই সিদ্ধান্ত থেকে পিছিয়ে আসছেন। শুক্রবার সিলেট শহর থেকে কিছু মাদরাসাশিক্ষার্থী ত্রাণ নিয়ে সালুটিকর ঘাটে গিয়েছিলেন। কিন্তু তাদের কাছে ৪০ হাজার টাকা নৌকা ভাড়া দাবি করা হয়!

এ বিষয়ে সিলেটের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মজিবুর রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, অতিরিক্ত ভাড়া দিয়েও নৌকা পাওয়া যাচ্ছে না সেটা ঠিক। কিন্তু এত বেশি ভাড়ার বিষয়টি জানা ছিল না। বিষয়টি খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

তিনি বলেন, উদ্ধার কাজে নৌকার সংকট নিরসনে কোম্পানীগঞ্জ ও গোয়াইনঘাটের ইউএনওদের নৌকা কিনতে বলা হয়েছে। এ জন্য তাদের বাজেটও বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।