free hit counter
বাংলাদেশ

সড়কের মাঝে বৈদ্যুতিক খুঁটি

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের পৌর জামতলা এলাকায় বাইপাস সড়ক সম্প্রসারণের কাজ চলছে। কিন্তু সড়কের মাঝ বরাবর দুই পাশে বৈদ্যুতিক খুঁটি রেখেই কার্পেটিংয়ের কাজ শেষ করা হয়েছে। সড়কের মাঝখানে খুঁটিগুলো থাকায় ঝুঁকি নিয়ে যানবাহন চলাচল করছে। এতে যেকোনও মুহূর্তে দুর্ঘটনার শঙ্কা দেখা দিয়েছে।

জানা গেছে, প্রায় আড়াই কোটি টাকা ব্যয়ে এই প্রকল্পে ৫০০ মিটার মহসড়কের দুই পাশ সম্প্রসারণ, ডিভাইডার স্থাপন ও সৌন্দর্যবর্ধনের কাজ চলছে। এই সড়কে কার্পেটিংয়ের কাজ সমাপ্ত হয়েছে সম্প্রতি। সড়কের মাঝে বিদ্যুতের খুঁটি রেখে কাজ শেষ করায় দুর্ঘটনার ঝুঁকি নিয়ে প্রতিনিয়ত যানবাহন চলাচল করছে।

সরেজমিন দেখা যায়, জামতলা এলাকায় সড়ক সম্প্রসারণ, ডিভাইডার স্থাপন ও সৌন্দর্যবর্ধনের কাজ চলছে। এর মধ্যে দুই পাশের সড়কের মাঝখানে তিনটি বৈদ্যুতিক খুঁটি রয়েছে। খুঁটিগুলো রেখেই কার্পেটিংয়ের কাজ শেষে যানবাহন চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে। ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে ছোট-বড় বিভিন্ন যানবাহন। ডিভাইডার স্থাপন ও সৌন্দর্য বর্ধনের কাজ এখনও শেষ হয়নি।

গোয়ালন্দ বাজার থেকে যাত্রী নিয়ে আসা অন্তর মোড়গামী অটোরিকশার চালক ফরিদুল বলেন, ‘ব্যস্ততম এই সড়ক দিয়ে সারাদিন ছোট-বড় যানবাহন চলাচল করে। বেশকিছু দিন ধরে সড়কের কাজ করছে দেখছি। কিন্তু রাস্তার দুই পাশে মাঝ বরাবর বৈদ্যুতিক খুঁটি রেখেই কার্পেটিংয়ের কাজ শেষ করা হয়েছে। এতে যেকোনও সময় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।’

স্থানীয়রা বলছেন, ব্যস্ততম এই সড়কের মাঝখানে বিদ্যুতের খুঁটি রেখেই রাস্তার কাজ শেষ করা হয়েছে। খুঁটিগুলো যেভাবে রয়েছে, তাতে যেকোনও সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটবে। কর্তৃপক্ষের দ্রুত খুঁটিগুলো অপসারণ করা উচিত।

রাজবাড়ী সড়ক ও জনপদ বিভাগের প্রকৌশলী নওয়াজিস রহমান বলেন, ‘বৈদ্যুতিক খুঁটির ব্যাপারে আমরা পিডিবি ও পল্লী বিদ্যুতের কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলেছি। তারা জুনের প্রথম সপ্তাহে চলমান কাজের সঙ্গে সড়কের মাঝে থাকা খুঁটিগুলো তুলে ফেলবেন।’

এ বিষয়ে রাজবাড়ী পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির সাব-জোনাল অফিসের সহকারী জেনারেল ম্যানেজার মো. নুর আইন বলেন, ‘তিনটি বৈদ্যুতিক খুঁটি সড়কের মাঝখানে পড়ে আছে। সাধারণত ওই লাইন দিয়েই গোয়ালন্দ উপজেলায় বিদ্যু সরবরাহ করা হয়েছে। কাজেই হুট করে খুঁটিগুলো সরানো সম্ভব নয়। আগামী ৪ জুন পল্লী বিদ্যুৎ ও পিডিবির পাওয়ার গ্রিডের রক্ষণাবেক্ষণ কাজের জন্য সারাদিন বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ থাকবে। ওই দিন খুঁটিগুলো অপসারণ করে স্থানান্তর করা হবে।’

Source link