সিলেটে নিহত ৭ জনের পরিচয় মিলেছে, মর্গের সামনে স্বজনদের আহাজারি
বাংলাদেশ

সিলেটে নিহত ৭ জনের পরিচয় মিলেছে, মর্গের সামনে স্বজনদের আহাজারি

সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত সাত জনের পরিচয় মিলেছে। এর মধ্যে ছয় জন অটোরিকশার যাত্রী এবং আরেকজন মাইক্রোবাসের চালক। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে এসে নিহতদের লাশ দেখে কান্নায় ভেঙে পড়েন স্বজনরা। হাসপাতালের মর্গের সামনে আহাজারি করতে দেখা যায় তাদের।

বৃহস্পতিবার (২০ জুলাই) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে সিলেট-ভোলাগঞ্জ সড়কের নন্দিরগাঁও ইউনিয়নের সুন্দ্রগাঁও এলাকার পিয়াইনগুল কলিম উল্লাহ উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। মাইক্রোবাসের চাকা ফেটে গেলে সিলেটগামী অটোরিকশাকে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলে ছয় জন এবং হাসপাতালে একজনের মৃত্যু হয়। এ ছাড়া আহত হয়ে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন চার জন। তারা মাইক্রোবাসের যাত্রী। সাভারের হেমায়েতপুর থেকে সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার ভোলাগঞ্জ সাদাপাথর পর্যটনকেন্দ্র ভ্রমণে এসেছিলেন মাইক্রোবাসের যাত্রীরা। পাশাপাশি কোম্পানীগঞ্জ থেকে সিলেট শহরে আসছিলেন অটোরিকশার যাত্রীরা।

আরও পড়ুন: মাইক্রোবাসের ধাক্কায় অটোরিকশার ৬ যাত্রী নিহত

নিহতরা হলেন—কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার পূর্ব ইসলামপুর ইউনিয়নের কালিবাড়ি গ্রামের মৃত আছদ্দর আলীর ছেলে মাওলানা কাজী আমির উদ্দিন (৪২), একই উপজেলার পশ্চিম ইসলামপুর ইউনিয়নের মো. শাহজাহানের ছেলে মো. কালন মিয়া (৩০), উত্তর রণিখাই ইউনিয়নের বতুমারা গ্রামের মৃত হোছন আহমদের ছেলে মো. ইদ্রিস আলী (৪০), দক্ষিণ ইসলামপুর ইউনিয়নের সুরুজ্জামালের স্ত্রী রিতা আক্তার (১৮), সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়নের মৃত আব্দুর রহমানের ছেলে একাব্বর আলী (৫৫), কোম্পানীগঞ্জের ইসলামপুর গ্রামের গয়াব আলীর ছেলে জালাল মিয়া (৩৫) ও মাইক্রোবাসের চালক মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলার ধল্লা ইউনিয়নের দোয়াত আলীর ছেলে আবু তাহের (৪৫)।

ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গের সামনে কাঁদছিলেন নিহত কাজী আমির উদ্দিনের বন্ধু শিহাব আহমদ। তিনি বলেন, ‘বাড়ি থেকে শহরে আসছিল আমির উদ্দিন। পথিমধ্যে ঘটেছে দুর্ঘটনা। এভাবে তার মৃত্যু কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছি না।’

আরও পড়ুন: মাইক্রোবাসে ঢাকা থেকে সাদাপাথর ভ্রমণে এসেছিলেন পর্যটকরা

গোয়াইনঘাট থানার ওসি নজরুল ইসলাম বলেন, ‘সাভার থেকে ছেড়ে যাওয়া ভোলাগঞ্জগামী মাইক্রোবাসের সামনের ডান চাকা ফেটে যায়। এতে চালক নিয়ন্ত্রণ হা‌রান। এ সময় কোম্পানীগঞ্জ থেকে আসা সিলেটমু‌খী অটো‌রিকশাকে ধাক্কা দিয়ে রাস্তার পাশের ডোবায় গিয়ে পড়ে মাইক্রোবাসটি। সেইসঙ্গে ঘটনাস্থলে ছয় জন এবং হাসপাতালে নেওয়ার পর একজনের মৃত্যু হয়। নিহতদের লাশ ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। আহত চার জন একই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।’

ওসি নজরুল ইসলাম আরও বলেন, ‘নিহতদের স্বজনদের খবর দেওয়া হয়েছে। তারা এলে আইনি প্রক্রিয়া শেষে লাশ হস্তান্তর করা হবে।’

দুর্ঘটনাকবলিত মাইক্রোবাসটি খাদ থেকে তোলা হয়েছে

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বুধবার রাতে সাভারের হেমায়েতপুর থেকে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার ভোলাগঞ্জ সাদাপাথর পর্যটনকেন্দ্র ভ্রমণে এসেছিলেন দুর্ঘটনায় পড়া মাইক্রোবাসের আরোহীরা। বৃহস্পতিবার সাদাপাথরসহ সিলেটের কয়েকটি পর্যটনকেন্দ্র ঘুরে রাতেই ফেরার কথা ছিল তাদের। 

আরও পড়ুন: অটোরিকশায় মাইক্রোবাসের ধাক্কা: নিহত বেড়ে ৭

সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপপরিচালক ডা. সৌমিত্র চক্রবর্তী বলেন, ‘ছয় জনকে মৃত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়েছে। আর পাঁচ জনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ভর্তি করা হয়। এর মধ্যে একজন চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। বাকি চার জন চিকিৎসাধীন আছেন।’

Source link

Related posts

প্রতিবন্ধী নারীকে ধর্ষণ মামলার পলাতক আসামি গ্রেপ্তার

News Desk

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ২৩১ জনের মৃত্যু

News Desk

একই সময়ে দুই ট্রেনের একটির বগি লাইনচ্যুত আরেকটির ইঞ্জিন বিকল

News Desk

Leave a Comment