Image default
বাংলাদেশ

রাজশাহী সদর আসনে নৌকা নিয়ে চলছে দুই বাদশার কথার লড়াই

রাজশাহী-২ (সদর) আসনে নির্বাচনি ময়দানে চলছে দুই বাদশার কথার লড়াই। একজন হলেন ১৪ দল মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা। অপরজন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের স্বতন্ত্র কাঁচি প্রতীকের প্রার্থী অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা।

রাজশাহী-২ আসনে ১৪ দল মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ফজলে হোসেন বাদশা বলেছেন, ‘এই নৌকা বঙ্গবন্ধু, শেখ হাসিনা ও জনগণের নৌকা। উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষায় শেখ হাসিনা সরকারের বিকল্প নেই। তাই কোনও ষড়যন্ত্র, সন্ত্রাস ও নৈরাজ্য নৌকার সুনিশ্চিত বিজয় ঠেকাতে পারবে না। মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় অসাম্প্রদায়িক, উন্নত ও সমৃদ্ধ রাজশাহী গড়তে নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে হবে।’

সোমবার (২৫ ডিসেম্বর) বিকালে নগরীর রেশমপট্টি থেকে শুরু করে ঘোড়ামারা, বোয়ালিয়া থানার মোড়, কুমারপাড়া হয়ে বড় মসজিদ পর্যন্ত গণসংযোগকালে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

টানা তিনবারের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা বলেন, ‘রাজশাহী শহরের প্রত্যেকটি পাড়া-মহল্লায় নৌকা মার্কার জোয়ার বইছে। নির্বাচনে যদি সাধারণ জনগণ সুষ্ঠুভাবে ভোটকেন্দ্রে এসে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারেন, তাহলে গত তিন বারের মতো এবারও নৌকার বিজয় কেউ ঠেকিয়ে রাখতে পারবে না। আমাদের কাজ হলো ভোটারের কাছে গিয়ে তাদের উদ্বুদ্ধ করে ভোটকেন্দ্রে নিয়ে আসা। নৌকা মার্কায় ভোট দেওয়ার জন্য মানুষ প্রস্তুত হয়ে বসে আছে। তারা জননেত্রী শেখ হাসিনার জন্য নৌকায় ভোট দেবে। বিগত দিনে যে কাজগুলো অসমাপ্ত থেকে গেছে; সবার পরামর্শ ও সহযোগিতা নিয়ে আমি সেগুলো শেষ করতে চাই।’

বিএনপি-জামায়াত নির্বাচনে অংশ না নিয়ে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে মন্তব্য করে ১৪ দলের অন্যতম এই নেতা বলেন, ‘আমাদের মূল রাজনৈতিক লড়াই হচ্ছে স্বাধীনতাবিরোধী ও মুক্তিযুদ্ধবিরোধী অপশক্তির বিরুদ্ধে লড়াই। যারা দেশ ও দেশের নির্বাচন ব্যবস্থাকে ধ্বংস করতে চায়, আমাদের লড়াই তাদের বিরুদ্ধে। আমরা এই নির্বাচনে বিপুলসংখ্যক ভোটারকে ভোটকেন্দ্রে উপস্থিত করতে চাই। বিএনপি-জামায়াত নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করে ষড়যন্ত্র করছে। সাধারণ ভোটারদের নির্বাচনে ভোট দানে নিরুৎসাহিত করছে। সব ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করে আগামী ৭ জানুয়ারি আমাদের নৌকার বিজয় সুনিশ্চিত করতে হবে।’

গণসংযোগকালে এমপি ফজলে হোসেন বাদশার সঙ্গে স্থানীয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, সামাজিক ও পেশাজীবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, ছাত্র ও যুব সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ সাধারণ জনতা উপস্থিত ছিলেন।

অন্যদিকে, আগামী ৭ জানুয়ারির দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রাজশাহী-২ আসনের কাঁচি প্রতীকের স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী আওয়ামী লীগ রাজশাহী মহানগরের সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশাকে জয়যুক্ত করার লক্ষ্যে গণসংযোগ করা হয়েছে।

সোমবার বিকাল ৩টার দিকে নগরীর ১৬নং ওয়ার্ডের বিভিন্ন এলাকায় এই গণসংযোগ করা হয়। এ সময় কয়েরদাড়ার খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের মানুষের সঙ্গে বড়দিনের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন আওয়ামী লীগ রাজশাহী মহানগরের সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা। শেষে নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে পথসভায় তিনি বলেন, ‘সেই নৌকার মাঝি আমরা চাই না,  যে গত ১৫ বছরে ভোট নেওয়ার পরে জনগণের সঙ্গে কোনও সম্পর্ক রাখেনি। যে কখনও বঙ্গবন্ধুর স্লোগান দেয়নি। সে কখনও নৌকার মাঝি হতে পারে না। এটিই হলো বাস্তবতা। তাই রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ সিদ্ধান্ত নিয়েছে, এই নৌকার মাঝি পরিবর্তন করতে হবে। কাঁচি প্রতীকে ভোট দিয়ে জনবিচ্ছিন্ন নৌকার মাঝি পরিবর্তন করতে হবে। এবারের নির্বাচনে কাঁচি মার্কায় নির্বাচন করে জয়যুক্ত হয়ে আমরা নেত্রীর কাছে প্রমাণ করবো আমরাই নৌকার প্রকৃত মাঝি।’

এ সময় উপস্থিত ছিলেন– আওয়ামী লীগের রাজশাহী মহানগরের উপদেষ্টা মো. রহিস উদ্দিন, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শ্যামল কুমার ঘোষ, আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক মো. ফিরোজ কবির সেন্টু, রাজশাহী শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক রাজকুমার সরকার, ১৬নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি রফিক উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন, যুগ্ম সম্পাদক বজলু রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক জীবন ও সূর্য, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ রাজশাহী মহানগর শাখা সভাপতি নূর মোহাম্মদ সিয়াম ও সাধারণ সম্পাদক সিরাজুম মুবিন সবুজ, রুয়েট শাখার সাবেক সভাপতি নিবিড় ও ইপু, সাধারণ সম্পাদক সৌমিক সাহা, শাহ মখদুম থানা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সোহান ও পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের সাধারণ সম্পাদকসহ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

Source link

Related posts

শিক্ষক সুনীলের বিরুদ্ধে মাইকিং করে জড়ো করা হয়েছিল স্থানীয়দের

News Desk

এখন আর পাহাড়ের পাদদেশে নির্ঘুম রাত কাটাতে হবে না জরিনাকে

News Desk

সকল ইউনিয়ন পরিষদে বঙ্গবন্ধুর ম্যূরাল স্থাপনের নির্দেশ

News Desk

Leave a Comment