Image default
বাংলাদেশ

রাজশাহীতে হাতির আক্রমণে শিশুসহ দুই জনের মৃত্যু

চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোল ও রাজশাহীর তানোরে ক্ষিপ্ত হাতির আক্রমণে শিশুসহ দুই জনের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার (৮ নভেম্বর) সকালে মারা যায় শিশু মুফাসসির (১২)। এদিন বিকালে নাচোল সীমান্ত পেরিয়ে রাজশাহীর তানোর উপজেলার মুণ্ডুমালা এলাকায় মারা যান রামপদ নামে এক ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর যুবক।

নিহত শিশু নেজামপুর ইউনিয়নের লক্ষ্মীপুর গ্রামের বুলবুল হোসেনের ছেলে। রামপদ তানোর উপজেলার মুণ্ডুমালা এলাকার ললিতের ছেলে।

ঘটনা সূত্রে জানা যায়, বুধবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে নেজামপুর ইউনিয়নের মানিকড়া গ্রামে মোশাররফের আম বাগানে ও বিকেলে মুণ্ডুমালা এলাকায় পৃথক দুটি মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে নাচোল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মিন্টু রহমান জানান, বুধবার সকালে মানিকড়া গ্রামে দুটি পাগলা হাতির আক্রমণে গুরুতর আহত হলে শিশু মুফাসসিরকে উদ্ধার করে নাচোল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান স্থানীয়রা। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় কর্তব্যরত চিকিৎসক শিশুটিকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য জেলা হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।

অপরদিকে বিকালে হাতিটি মুন্ডুমালা ধামধুম এলাকায় রামপদ নামে আরেক ব্যক্তিকে হত্যা করে। এরপর থেকেই এলাকাজুড়ে সাধারণ মানুষের মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। পরে খবর পেয়ে নাচোল ও তানোর থানা পুলিশ, দুই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও), ফায়ার সার্ভিস ও রাজশাহী বন বিভাগের কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে যান। এ ঘটনায় চার জন মাহুতকে আটক করা হয়েছে। তারা পুলিশ হেফাজতে রয়েছেন।

স্থানীয় কৃষক সাইফুল আলম বলেন, ‘গত দুদিন ধরে দুটি হাতি নাচোল উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় চাঁদাবাজি করে আসছিল। মঙ্গলবার শ্রমিকবোঝাই একটি ইজিবাইকে চাঁদাবাজি করার সময় শ্রমিকরা বাধা দিলে ইজিবাইকটি সড়কের ওপর উল্টে দেয়। এ সময় কয়েকজন শ্রমিক আহত হয়। এ নিয়ে হাতির মাহুত ও শ্রমিকদের মাঝে বাগবিতণ্ডা হয়। এরপর থেকেই একটি হাতি দিগ্‌বিদিক ছোটাছুটি করে। সারারাত মাঠের ধান ও বেশ কিছু আম গাছ নষ্ট করে।

প্রত্যক্ষদর্শী মুনজেলা নামে এক নারী বলেন, ‘সকালে একটি হাতি বাঁধা ছিল। অপর একটি দৌড়াদৌড়ি করছিল। এ সময় বেশ কয়েকজন লোক হাতিটি দেখতে যায়। তখনই হাতিটি মানুষের দিকে তেড়ে আসে। সে সময় হাতির আক্রমণে মুফাসসির মারা যায়।’

আটক করা হয়েছে চার মাহুতকে

আজিজুর রহমান নামে এক কৃষক বলেন, ‘সকাল থেকে হাতিটি পাকা ধানের মধ্যে ঢুকে প্রচুর পরিমাণে ধান নষ্ট করেছে। এসব ধান আর মাত্র কয়েক দিন পরেই কাটা হতো। হাতির এমন তাণ্ডব চলতে থাকলে মাঠের সমস্ত পাকা ধান নষ্ট হয়ে যাবে।’

নেজামপুর ইউনিয়ন পরিষদের ২ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য (মেম্বার) তোজাম্মেল হক বলেন, ‘চাঁদাবাজি করা হাতিটি ছুটে গিয়ে মাঠে ও গ্রামে তাণ্ডব চালাচ্ছে। এক শিশু মারা যাবার পর এলাকার সাধারণ মানুষ আতঙ্কে দিন পার করছে। দ্রুত হাতিটি ধরা না পড়লে হয়তো বা বড় ধরনের ক্ষতি হতে পারে।’

বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ রাজশাহীর বন্যপ্রাণী পরিদর্শক জাহাঙ্গীর কবির বলেন, ‘হাতিটি ব্যক্তি মালিকানাধীন হওয়ায় কোনও ব্যবস্থা নিতে পারছি না। তবে হাতির মালিককে খবর দেওয়া হয়েছে। নওগাঁ থেকে আসলে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে যত দেরি হবে ততক্ষণ আতঙ্ক রয়েছে।’

মঙ্গলবার শ্রমিকবোঝাই একটি ইজিবাইক উল্টে দেয় হাতিটি

নাচোল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাইমেনা শারমীন বলেন, ‘খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। দ্রুত যেন হাতিটি আটক করা যায়, সে বিষয়ে প্রাণিসম্পদ দফতর রাজশাহীতে খবর দেওয়া হয়েছে। সকলের চেষ্টায় একটি হাতি আটক করা হয়েছে।’

এদিকে, বুধবার বিকালের দিকে আরেকটি হাতি তানোরের কৃষক রামপদকে আক্রমণ করে। তাকে আছড়ে মাটিতে ফেলে দেয় হাতিটি। স্থানীয়রা মাটিতে পড়ে থাকা কৃষক রামপদকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এমন মৃত্যুর ঘটনায় পরিবার ও এলাকায় চরম শোকের ছায়া নেমে এসেছে। এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। সন্ধ্যায় তানোর থানার ওসি আব্দুর রহিম ঘটনা নিশ্চিত করে বলেন, ‘হাতিটিকে এখনও ধরা যায়নি। স্থানীয় জনতা ও প্রশাসনের লোকজন এবং বন বিভাগের কর্মকর্তারা মিলে হাতিটিকে ধরতে চেষ্টা চলানো হচ্ছে।’

Source link

Related posts

বন্ধ হচ্ছে না অবৈধ মোবাইল হ্যান্ডসেট

News Desk

পদ্মায় পানি বাড়ায় ফেরি চলাচল ব্যাহত

News Desk

রামসাগর এক্সপ্রেস ট্রেনের উদ্বোধন করে মন্ত্রী বললেন রেল-ব্যবস্থা ধ্বংস করেছিল বিএনপি

News Desk

Leave a Comment