Image default
বাংলাদেশ

মোংলা বন্দর থেকে সাড়ে ৩ ঘণ্টায় ঢাকায়

পদ্মা সেতুতে যানবাহন চলাচল শুরুর পর সুফল পেতে শুরু করেছেন বাগেরহাটের মোংলা বন্দর কেন্দ্রীক ব্যবসায়ীরা। আগে মোংলা থেকে ঢাকায় পণ্য নিয়ে পৌঁছাতে ১০ থেকে ১৪ ঘণ্টা সময় লাগতো। এখন মাত্র তিন ঘণ্টায় ঢাকায় পৌঁছানো যাচ্ছে।

ব্যবসায়ীরা বলছেন, পদ্মা সেতু চালুর পর ভোগান্তি কমায় আমদানি-রফতানি বাণিজ্যের সঙ্গে জড়িত ট্রাক-লরির চালক ও হেলপাররা অনেক খুশি। এই সেতু চালু হওয়ায় রাজধানীর সাথে সাড়ে তিন ঘণ্টায় সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থার কারণে বছরে প্রায় দুই হাজার কোটি টাকা সাশ্রয় হবে। 

মোংলা বন্দর এলাকার পরিবহন ব্যবসায়ী কামাল হোসেন বলেন, ‘পদ্মা সেতু উদ্বোধনের পরদিন রবিবার বিকালে কোম্পানির মাল নিয়ে সাড়ে তিন ঘণ্টার মধ্যে ঢাকায় পৌঁছেছি। এর আগে ঢাকায় রওনা দিলে কখন পৌঁছাবো তার কোন নিশ্চয়তা ছিল না। মাওয়া ঘাটে সিরিয়াল দিয়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা বসে থাকতে হয়েছে। এমনকি দুই থেকে তিন দিন পর সিরিয়াল পেতাম। তার ওপর ফেরির লোকজন ম্যানেজ করাসহ নানা ঝামেলায় পড়তে হতো। এখন আর সেই সমস্যা নাই।’

মোংলা বন্দর ক্লিয়ারিং অ্যান্ড ফরওয়ার্ডি অ্যাসোসিয়েশনের (সিঅ্যান্ডএফ) সভাপতি সুলতান আহমেদ বলেন, ‘পদ্মা সেতু মোংলা বন্দরের ব্যবসায়ীদের জন্য একটি আশির্বাদ। সেতুটি চালুর পর ব্যবসায়ীদের বিভিন্ন পণ্য নিয়ে প্রায় দুই শতাধিক ট্রাক ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে গেছে। এ বন্দর ব্যবহার করে আমদানি-রফতানির সঙ্গে জড়িত প্রায় চার শতাধিক ব্যবসায়ী।’

আমদানি করা শতাধিক গাড়ি মোংলা থেকে সাড়ে তিন ঘণ্টায় ঢাকায় পৌঁছেছে

তিনি আরও বলেন, ‘আগে মোংলা বন্দর থেকে ঢাকায় আমাদের পণ্য পৌঁছাতে সময় লাগতো ১০ থেকে ১৪ ঘণ্টা। এখন লাগছে মাত্র সাড়ে তিন ঘণ্টা। এর ফলে শুধু সড়কপথেই আমাদের আমদানি-রফতানি বাণিজ্যের সঙ্গে জড়িত ব্যবসায়ীদের সময় বাঁচার পাশাপাশি বছরে সাশ্রয় হবে প্রায় দুই হাজার কোটি টাকা। এছাড়া এই অঞ্চলে ব্যবসা-বাণিজ্য আরও বেড়ে যাবে।’

বাংলাদেশ রিকন্ডিশন্ড ভেহিক্যালস ইম্পোর্টার অ্যান্ড ডিলার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বারবিডা) সভাপতি হাবিবুল্লাহ ডন বলেন, ‘পদ্মা সেতু উদ্বোধনের পর ব্যবসায়ীদের আমদানি করা শতাধিক গাড়ি মোংলা বন্দর থেকে সাড়ে তিন ঘণ্টায় রাজধানীতে পৌঁছে গেছে। ব্যবসায়ীদের শুধু জ্বালানি তেল বাবদ বছরে আনুমানিক প্রায় ১২ কোটি টাকা সাশ্রয় হবে। পদ্মা সেতু চালু হওয়ায় বন্দর দিয়ে গাড়ি আমদানিতে ব্যবসায়ীদের আগ্রহ বেড়েছে।’

Source link

Related posts

একসঙ্গে ৪ মৃত্যু দেখে অরক্ষিত রেল ক্রসিংয়ের দায়িত্ব নিলেন ভ্যানচালক

News Desk

শেষ সময়ে এসে প্রাথমিক বৃত্তি পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত

News Desk

কষ্ট লাঘবে শীতার্তদের পাশে মাঠ প্রশাসন

News Desk

Leave a Comment