ভোলার মনপুরায় মেঘনা নদী থেকে অপহরণের ২৩ ঘণ্টা পর সাত জেলেকে উদ্ধার করা হয়েছে। তবে জেলেদের উদ্ধারের বিষয়ে কোস্টগার্ড ও আড়তদার ইউপি চেয়ারম্যান বিপরীত বক্তব্য দিয়েছেন।

রবিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) হাতিয়া কোস্টগার্ড এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে দাবি করে, রবিবার ভোর ৫টায় হাতিয়ার চর আতাউরে অভিযান পরিচালনা করে অপহৃত ট্রলারসহ জেলেদের উদ্ধার করা হয়। কিন্তু কোনও জলদস্যুকে আটক করা সম্ভব হয়নি।

এদিকে, অপহৃত জেলেদের আড়তদার ও ইউপি চেয়ারম্যান অলি উল্লাহ কাজল দাবি করেন, মুক্তিপণের বিনিময়ে জেলেদের উদ্ধার করা হয়। মুক্তিপণের দুই লাখ দুই হাজার টাকা জলদস্যুদের পাঁচটি মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাকাউন্টে দেওয়ার পর জেলেদের মুক্তি দেয়।

এই ব্যাপারে নোয়াখালী জেলার হাতিয়া কোস্টগার্ডের স্টেশন কমান্ডার লে. ইফতেখারুল জানান, কোস্টগার্ডের অভিযানে উদ্ধার হওয়া জেলেদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, শনিবার ভোরে ৬টায় মনপুরার চরপিয়াল সংলগ্ন মেঘনায় মাছ শিকারের সময় জলদস্যু মহিউদ্দিন বাহিনী সাত জেলে হামলা চালিয়ে ট্রলারসহ সাত জেলেকে অপহরণ করে।

Source link

Related posts

কুমিল্লা সিটি নির্বাচন: মাঠে নেমেছে বিজিবি

News Desk

বজ্রাঘাতে প্রাণ গেলো সৌদি প্রবাসীর 

News Desk

১২ বছরে কোটিপতি সাবিহা

News Desk

Leave a Comment