Image default
বাংলাদেশ

ভারী বর্ষণে ভেসে গেছে খামারের কোটি কোটি টাকার মাছ

ভারী বর্ষণে ময়মনসিংহের প্রায় সাড়ে চার হাজার হেক্টর এলাকার মৎস্যখামার ও পুকুর তলিয়ে সব মাছ বের হয়ে গেছে। হঠাৎ এভাবে বৃষ্টিতে মাছ বের হয়ে যাওয়ায় মাছচাষি ও হ্যাচারি মালিকরা আর্থিকভাবে মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা দিলীপ কুমার বলেন, ‘দুই দিনের বৃষ্টিতে এখন পর্যন্ত আমরা জেনেছি, জেলার সাড়ে চার হাজার হেক্টর এলাকার পুকুর ও জলাশয় তলিয়ে গেছে। এ কারণে ৪০০ থেকে ৫০০ কোটি টাকার মাছ বের হয়ে গেছে।’

তিনি আরও জানান, সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন ত্রিশাল, ভালুকা এবং ময়মনসিংহ সদরের মাছ চাষিরা। ক্ষতির পরিমাণ আরও বাড়তে পারে।

ত্রিশালের ধলা এলাকার শাপলা হ্যাচারির মালিক মোহাম্মদ আলী বলেন, ‘আমার হ্যাচারিতে ২৮টি পুকুর ছিল। সবগুলোই বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে গেছে। সব মাছ পুকুর থেকে বের হয়ে গেছে।’ আনুমানিক ১০ কোটি টাকার মাছ পুকুর থেকে বের হয়ে গেছে বলে জানান তিনি।

গৌরীপুরের বর্মণ হ্যাচারির মালিক যতীন্দ্র বর্মণ জানান, তার হ্যাচারিতে ১৮টি পুকুর ছিল। বৃষ্টির পানিতে সবগুলো তলিয়ে গিয়ে মাছ বের হয়ে গেছে। হ্যাচারির বাইরে দুটি পুকুর ছিল। ওই দুটি পুকুরের মাছ অবশিষ্ট আছে। প্রায় পাঁচ থেকে সাত কোটি টাকার মাছ তার হ্যাচারি থেকে বের হয়ে গেছে, দাবি যতীন্দ্র বর্মণের।

ময়মনসিংহের প্রায় সাড়ে চার হাজার হেক্টর এলাকার জলাশয় তলিয়ে গেছে ময়মনসিংহ সদরের চর ঈশ্বরদীয়া গ্রামের মাছ চাষচাষি কামরুল হাসান জানান, শুধু তিনি নিজে না, আশপাশের অধিকাংশ মাছচাষি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন এই বৃষ্টির কারণে। বেশির ভাগ পুকুর তলিয়ে গেছে এবং মাছ বাইরে বের হয়ে গেছে।

ক্ষতিগ্রস্ত চাষিদের সরকারিভাবে সহযোগিতা করলে আবারও তারা ঘুরে দাঁড়াতে পারবেন বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার (৫ অক্টোবর) বিকাল থেকে শুক্রবার (৬ অক্টোবর) সকাল ৮টা পর্যন্ত একটানা ভারী বৃষ্টিতে ময়মনসিংহে ৩৭৮ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

Source link

Related posts

কচ্ছপিয়ার মাদক সম্রাট বেলাল ইয়াবাসহ আটক

News Desk

দেশে প্রায় ৯৭ লাখ ভ্যাকসিন প্রয়োগ শেষ

News Desk

উৎসবহীন পহেলা বৈশাখ, বাংলা ১৪২৮ সালের প্রথম দিন

News Desk

Leave a Comment