free hit counter
বাংলাদেশ

ফিলিং স্টেশন মালিককে অপহরণ করে ৫ কোটি টাকা ‍দাবি করেছে তারা

গোপালগঞ্জের ফিলিং স্টেশন মালিক নিরু মোল্লাকে রাস্তা থেকে ফিল্মি স্টাইলে অপহরণের পর পাঁচ কোটি টাকা মুক্তিপণ দাবি করা হয়েছিল। এ ঘটনায় ছয় ঘণ্টা অভিযান চালিয়ে পাঁচ অপহরণকারীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৬।

মঙ্গলবার (২ আগস্ট) সকালে খুলনা কেডিএ ময়ূরী আবাসিক প্রকল্পের সামনে থেকে তাকে অপহরণ করা হয়েছিল। একই দিন সন্ধ্যায় হরিণটানা থানার আল আকসানগর এলাকা থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়। বুধবার (৩ আগস্ট) বিকালে র‌্যাব-৬-এর পরিচালক লে. কর্নেল মুহাম্মদ মোসতাক আহমদ এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

গ্রেফতারকৃতরা হলো- গোপালগঞ্জের রাজু শেখ (২৫), নড়াইলের সাইফুল ইসলাম মোল্লা (৩০), মো. হোজাইফা আল বারী (২৮), খুলনার মো. রানা বেগ (৩০) ও মো. রাসেল মৌলঙ্গী (২৮)। অপহরণের শিকার নিরু মোল্লা (৫০) গোপালগঞ্জ সদরের বিজয়পাশা এলাকার বাসিন্দা।

র‌্যাব জানায়, নিরু মোল্লা গোপালগঞ্জ সদরের বিজয়পাশা এলাকার ধনাঢ্য ব্যবসায়ী। তার একটি ফিলিং স্টেশন ও দুটি ইটভাটা রয়েছে। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে গোপালগঞ্জ থেকে নিজের মাইক্রোবাসে ব্যবসায়িক কাজে খুলনায় রওনা হন। সকাল পৌনে ৮টার দিকে খুলনা কেডিএ ময়ূরী আবাসিক প্রকল্পের মূল গেটের সোনাডাঙ্গা বাইপাস সড়কে পৌঁছান।

এ সময় পাঁচটি মোটরসাইকেলে আসা ১০ যুবক তার গাড়ি থামায়। পরে পাঁচ জন গাড়ির দরজা খুলে ভেতরে প্রবেশ করে। তারা ব্যবসায়ীকে মারধর করে হত্যার হুমকি দিয়ে চোখ বেঁধে মাইক্রোবাসযোগে তুলে নিয়ে যায়। সেইসঙ্গে পাঁচ কোটি টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। অপর পাঁচ যুবক মোটরসাইকেলে পেছনে পেছনে যায়। সারাদিন ব্যবসায়ীকে খুলনার বিভিন্ন স্থানে গাড়িতে করে ঘোরানো হয়। প্রাণভয়ে অপহরণকারীদের ৫০ লাখ টাকা দিতে রাজি হন ব্যবসায়ী।

উদ্ধারকৃত মোবাইল ও টাকা

তখন অপহরণকারীরা একটি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নম্বর দিয়ে খুলনা শাখায় টাকা পাঠিয়ে দিতে বলে। নিরু মোল্লা তার ফিলিং স্টেশনের ম্যানেজারকে ফোন দিয়ে ৫০ লাখ টাকা পাঠিয়ে দিতে বলেন। ম্যানেজার বিষয়টি নিরু মোল্লার স্ত্রীকে জানান। তার স্ত্রী ঘটনাটি র‌্যাবকে জানান। 

র‌্যাব-৬-এর পরিচালক লে. কর্নেল মুহাম্মদ মোসতাক আহমদ বলেন, ‘অভিযোগ পাওয়ার পরপরই গোয়েন্দা তথ্যের মাধ্যমে আমরা জানতে পারি অপহরণকারীরা খুলনার হরিণটানা থানার ৩ নম্বর গুটুদিয়া আল আকসানগর এলাকায় অবস্থান করছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা থেকে আকসানগর এলাকায় ছয় ঘণ্টা অভিযান চালিয়ে ব্যবসায়ীকে উদ্ধার করা হয়। একইসঙ্গে পাঁচ অপহরণকারীকে গ্রেফতার করা হয়।’

তিনি বলেন, ‘গ্রেফতারকৃতরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে অপহরণের কথা স্বীকার করেছে। তাদের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে হরিণটানা থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।’

Source link