free hit counter
বাংলাদেশ

ফাঁকা কুমিল্লার মহাসড়ক

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার দাউদকান্দি ও চান্দিনার অংশের দুই-একটি স্পট ছাড়া ৯৬ কিলোমিটারের পুরো মহাসড়কই ফাঁকা। বৃহস্পতিবার (৭ জুলাই) সন্ধ্যা পর্যন্ত বড় ধরনের যানজটের কোনও খবর পাওয়া যায়নি। তবে দাউদকান্দি টোল প্লাজা ও নিমসার বাজার এলাকায় যানবাহনের ধীরগতি রয়েছে বলে জানিয়েছে হাইওয়ে পুলিশ। 

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের বিভিন্ন এলাকায় খবর নিয়ে জানা যায়, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দাউদকান্দি উপজেলার গৌরীপুর বাজার, চান্দিনা উপজেলার মাধাইয়া বাজার এলাকায় যানবাহনের ধীরগতি আছে। এছাড়া বুড়িচং অংশের নিমসার বাজারে হঠাৎ হঠাৎ ধীরগতি লক্ষ্য করা গেছে। এছাড়া দাউদকান্দি এলাকায় টোল প্লাজার কাছাকাছি যানবাহনের ধীর গতি রয়েছে বলে জানা গেছে। তবে বাদবাকি মহাসড়ক ফাঁকা।

চৌদ্দগ্রাম উপজেলার বাসিন্দা মিজানুর রহমান বলেন, টোল প্লাজার কাছাকাছি একটু ধীরগতি রয়েছে। এছাড়া সড়ক ফাঁকা। আমার আত্মীয় স্বজনরা ঢাকা থেকে বাড়ি এসেছেন। তাদের আড়াই ঘণ্টা সময় লেগেছে।

দাউদকান্দির বাসিন্দা কাউছার হামিদ বলেন, গৌরীপুর বাজারের পাশে আমার বাড়ি। প্রতি বছর মারাত্মক যানজট থাকে। তবে এবার সে অবস্থা নেই। ওই এলাকার অনেক কিশোর-যুবক এ সময়  যানজটে আটকে থাকা গাড়ির যাত্রীদের কাছে ঠাণ্ডা পানি, আইসক্রিম ও গাজর/শসা বিক্রি করতো, এবার তাদের সড়কে দেখা যায় না।

কুমিল্লা থেকে ঢাকায় যাওয়া আবদুর রহমানের সঙ্গে মোবাইলফোনে কথা হয়। তিনি বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, দেখতে দেখতে ঢাকায় চলে এসেছি। দুই ঘণ্টার মতো লেগেছে। গত ঈদের তুলনায় সড়ক বেশ ফাঁকা। 

দাউদকান্দি হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জহুরুল হক সন্ধ্যা ৭টার দিকে জানান, টোলপ্লাজা ও নিমসার বাজার এলাকায় কিছুটা ধীরগতি রয়েছে। এছাড়া মহাসড়ক ফাঁকা বলা চলে। এবার মানুষকে যানজট ছাড়া ঘরে পৌঁছাতে পারছি, এটা বেশ ভালো লাগছে।  

 

Source link