free hit counter
বাংলাদেশ

প্রস্তুত অতিরিক্ত ইভিএম

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচন উপলক্ষে ভোট কেন্দ্রগুলোতে সরঞ্জাম পাঠানো হয়েছে। কুমিল্লা জেলা স্কুল থেকে মঙ্গলবার (১৪ জুন) সকাল ১০টায় সরঞ্জাম পাঠানো শুরু হয়। বিকালের মধ্যে প্রতিটি কেন্দ্রে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনসহ (ইভিএম) সব সরঞ্জাম পৌঁছানো হয়েছে। 

কুমিল্লা জেলা স্কুল ঘুরে ও রিটার্নিং কর্মকর্তা শাহেদুন্নবী চৌধুরীর সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে।

রিটার্নিং কর্মকর্তা বলেন, ২৭ ওয়ার্ডে ৯ জন সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা কাজ করবেন। ১০৫টি কেন্দ্রে বুথ সংখ্যা ৫৪০টি। কোনও কারণে যদি ইভিএম মেশিন হ্যাং অথবা যান্ত্রিক ত্রুটি দেখা দেয় তাহলে ৫৪০টি বুথের জন্য রাখা হয়েছে ২৭০টি অতিরিক্ত ইভিএম। বুথ হিসাব করে সেগুলো কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে। 

এ সময় নির্বাচন সুষ্ঠু ও সুন্দর হবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি। 

নির্বাচনে মেয়র পদে পাঁচ, ২৭ ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলর পদে ১০৮ ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৩৬ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। সিটিতে ভোটারের সংখ্যা দুই লাখ ২৯ হাজার। এর মধ্যে দেড় লাখ ভোট কাস্ট হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে ভোটের দিন হালকা বা মাঝারি ধরনের বৃষ্টির আভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর। বৃষ্টি হলে কমতে পারে ভোটারের উপস্থিতি।

নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী পাঁচ প্রার্থীর মধ্যে রয়েছেন- আওয়ামী লীগ মনোনীত আরফানুল হক রিফাত (নৌকা), স্বতন্ত্র প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কু (টেবিল ঘড়ি), মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিন কায়সার (ঘোড়া), রাশেদুল ইসলাম (হাতপাখা) ও কামরুল আহসান বাবুল (হরিণ প্রতীক)। 

এর মধ্যে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থীর বিরুদ্ধে সাধারণ ভোটারদের হুমকি ধমকি ও ভয়ভীতি দেখানোর অভিযোগ তুলেছেন সাক্কু ও কায়সার। অপরদিকে নৌকার প্রার্থী অভিযোগ করেছেন, কিছু প্রার্থী নির্বাচনে কালো টাকা ছড়াচ্ছেন।

Source link