Image default
বাংলাদেশ

প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক বরখাস্ত

মাদারীপুর জেলার শিবচরে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় প্রান্তিক মূল্যায়নের প্রশ্ন ফাঁস করার অভিযোগে মো. নুরুল আমীন নামে এক শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। 

বরখাস্তকৃত ওই শিক্ষক শিবচর উপজেলার শিরুয়াইল ইউনিয়নের ১৬২ নম্বর উতরাইল মুন্সীকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ও শিবচর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষককল্যাণ সমিতির তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক।

সোমবার (২৭ নভেম্বর) দুপুরে মাদারীপুর জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা তাপস কুমার পাল স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। সন্ধ্যায় শিবচর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মুন্সি রুহুল আসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

স্থানীয় ও শিবচর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা যায়, রবিবার (২৬ নভেম্বর) সন্ধ্যায় শিবচর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক ঐক্য পরিষদ নামে একটি মেসেঞ্জার গ্রুপে শিক্ষক নুরুল আমীন সোমবার (২৭ নভেম্বর) অনুষ্ঠেয় ৩য়, ৪র্থ ও ৫ম শ্রেণির ধর্ম ও নৈতিক শিক্ষা বিষয়ের তৃতীয় প্রান্তিক মূল্যায়ন পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁস করেন। রাতে বিষয়টি শিবচর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মুন্সি রুহুল আসলামসহ সংশ্লিষ্টদের নজরে আসে। পরে শিবচর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারের পরামর্শে ২৭ নভেম্বরের সকল পরীক্ষা স্থগিত করেন।

এদিকে সরকারি কর্মচারী (শৃঙ্খলা ও আপিল) বিধিমালা, ধারা ২০১৮ এর ৩(খ) ও (ঘ) এর অধীনে কার্যক্রমের জন্য মাদারীপুর জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা তাপস কুমার পাল স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে তাকে (নুরুল আমীন) রবিবার থেকে সহকারী শিক্ষক পদে সাময়িক বরখাস্ত করেন।

এ বিষয়ে ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শিখা রানী ওঝার সঙ্গে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি জানান, রবিবার তার বাড়িতে অনুষ্ঠানের কারণে অভিযুক্ত শিক্ষককে অফিসের চাবি বুঝিয়ে দিয়ে গেলে পরে কী হয়েছে এ বিষয়ে তিনি অবগত নন।

শিবচর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মুন্সি রুহুল আসলাম বলেন, ‘বিষয়টি আমাদের নজরে এলে আমরা সঙ্গে সঙ্গে সেখানে যাই। আজকের সকল পরীক্ষা স্থগিত করেছি। আমরা ওই শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত করেছি ও প্রধান শিক্ষককে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছি। শিক্ষা ক্ষেত্রে কোনও অনিয়ম ছাড় দেওয়া হবে না।’

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার তাপস কুমার পাল জানান, প্রশ্ন ফাঁসের কারণে সোমবারের সকল শ্রেণির ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা বিষয়ের পরীক্ষা স্থগিত করা হয়। প্রশ্ন ফাঁসের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে উতরাইল মুন্সীকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নুরুল আমিনকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Source link

Related posts

ছিনতাই ঠেকাতে শেষরাত ও ভোরে টহল বাড়ানোর নির্দেশ ডিএমপির

News Desk

সীতাকুণ্ডের আগুনে ৬৩ জনের চোখ ক্ষতিগ্রস্ত

News Desk

দুই বছর পর যশোরে বর্ষবরণের প্রস্তুতি

News Desk

Leave a Comment