কুড়িগ্রামের রাজারহাট পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আশরাফুল ইসলামের বিরুদ্ধে নানা অনিয়মের অভিযোগ এনে তাকে অপসারণের দাবিতে ক্লাস বর্জন কর্মসূচি শুরু করেছেন বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ও কর্মচারীরা। রবিবার সকাল থেকে এ কর্মসূচি পালন করেন শিক্ষকরা।

আন্দোলনকারী শিক্ষকরা বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী ও বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের নিয়ে কটূক্তি, জাল সনদ (বিপিএড) দিয়ে চাকরিতে যোগদান, অর্থ আত্মসাৎসহ বিভিন্ন অপরাধ করে আসছেন প্রধান শিক্ষক আশরাফুল ইসলাম। তিনি সহকারী শিক্ষকদের সঙ্গে অসদাচরণ এবং নারী শিক্ষকদের হয়রানি করেন। এসব অভিযোগে প্রধান শিক্ষকের অপসারণ চেয়ে ২০২১ সালে সব শিক্ষক-কর্মচারী গভর্নিং বডির সভাপতি বরাবর লিখিত অভিযোগ করলে সভাপতি ও ম্যানেজিং কমিটি প্রধান শিক্ষককে ছয় মাসের ছুটিতে পাঠায়। ছুটির মেয়াদ শেষ হলে গত ১৮ আগস্ট তিনি আবার বিদ্যালয়ে যোগদান করেন। কিন্তু আমরা এমন প্রধান শিক্ষক চাই না। আমরা তার অপসারণ চাই।’

সহকারী শিক্ষকরা জানান, অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক আশরাফুল ইসলামকে অপসারণের দাবিতে তারা পাঁচ দিনব্যাপী ক্লাস বর্জন কর্মসূচি গ্রহণ করেছেন। তাদের কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে– আগামী ২৫ অক্টোবর কর্মববিরতিসহ বিদ্যালয়ের শহীদ মিনারে অবস্থান, ২৬ অক্টোবর কর্মবিরতিসহ ইউএনও অফিসের সামনে অবস্থান, ২৭ অক্টোবর কর্মবিরতিসহ সাংবাদিক সম্মেলন এবং ৩০ অক্টোবর কর্মবিরতিসহ প্রধান শিক্ষক অপসারণ না হওয়া পর্যন্ত বিদ্যালয়ের সামনে অবস্থান।

তবে নিজের বিরুদ্ধে বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ মিথ্যা এবং ভিত্তিহীন দাবি করেছেন অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক আশরাফুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘আমি আন্দোলনরত শিক্ষকদের ক্লাসে যাওয়ার অনুরোধ করেছি। কিন্তু তারা ক্লাসে যাননি। বিষয়টি জেলা প্রশাসকের কাছে তদন্তাধীন থাকায় আমি এ নিয়ে কোনও মন্তব্য করতে পারছি না।’

এদিকে, কার্য নির্বাহী কমিটির মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ায় গত পাঁচ মাস ধরে স্কুলটির শিক্ষক-কর্মচারীরা বেতন পাচ্ছেন না বলে জানান। তারা অবিলম্বে তাদের বেতন-ভাতা প্রদানের ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি জানান।

 

Related posts

ধানের মৌসুমেও ৫৩ টাকার মিনিকেট ৬৫ টাকা

News Desk

৩১ বছর পরও ভয়ে আঁতকে ওঠেন মাবিয়া

News Desk

সিএমপির ১১ কর্মকর্তাকে এক যোগে বদলি

News Desk

Leave a Comment