Image default
বাংলাদেশ

‘প্রধানমন্ত্রীকে টিভিতে দেখে মন ভরে না, তাই সরাসরি দেখতে এসেছি’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আগমন উপলক্ষে উৎসবের পরিবেশ বিরাজ করছে বরিশাল নগরীর বঙ্গবন্ধু উদ্যানে। শুক্রবার (২৯ ডিসেম্বর) সকাল ১০টা থেকে খণ্ড খণ্ড মিছিল এসে পুরো মাঠজুড়ে অবস্থান নিয়েছেন নেতাকর্মীরা। এ জন্য ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। এমনকি পানি থেকে শুরু করে শৌচাগারের ব্যবস্থাও রাখা হয়েছে মাঠে।

বরিশালে একাধিক মেগা প্রকল্প এখনও চলমান রয়েছে। তাছাড়া পদ্মা সেতুর উদ্বোধনের পর প্রথমবারের মতো প্রধানমন্ত্রীর ঐতিহাসিক এই জনসভা বরিশালে। সেই জনসভায় প্রধানমন্ত্রীকে কাছ থেকে দেখার সুযোগ এবং প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাতে তারা জড়ো হয়েছেন। কথাগুলো বলছিলেন বরিশাল নগরীর বিভিন্ন এলাকার বাসিন্দারা।

ভোলা থেকে আসা মোসেলম উদ্দিন বলেন, প্রধানমন্ত্রী বরিশাল বিভাগে ছয় জেলার নৌকার প্রার্থীদের জন্য ভোট চাইবেন। আমরা তাকে আশ্বস্ত করবো ৭ জানুয়ারির নির্বাচনে নৌকা প্রার্থীদের বিজয়ী করে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখবো। আসলে তার কাছে এখন আর চাওয়ার কিছু নেই। না চাইতে কিনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। এখন তাকে দেওয়ার পালা।

নগরীর বিথী বলেন, সারাক্ষণ টেলিভিশনে পর্দায় প্রধানমন্ত্রীকে দেখে আসছি। এতে মন ভরে না। প্রধানমন্ত্রীকে কাছ থেকে দেখে মন ভরাতে বঙ্গবন্ধু উদ্যানে এসেছি। তাছাড়া দেশে নারী নেতৃত্বে প্রধানমন্ত্রী যে অবদান রেখেছেন তা আর কোনও সরকার রাখেনি। এ জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা।

‘প্রধানমন্ত্রীকে টিভিতে দেখে মন ভরে না, তাই সরাসরি দেখতে এসেছি’

জনসভায় আসা মানুষের জন্য চারটি স্থান থেকে মেটাল ডিটেক্টরের মাধ্যমে চেক করে মাঠে ঢোকানো হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তাকে অগ্রাধিকার নিরাপত্তায় কাজ করছেন একাধিক আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আগমন উপলক্ষে সমন্বয় কমিটির সদস্য বলরাম পোদ্দার বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, সমাবেশে সভাপতিত্ব করবেন বরিশাল-১ আসনের আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ। সমাবেশ সঞ্চালনা করছেন বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তালুকদার মো. ইউনসু।

অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখবেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম।

‘প্রধানমন্ত্রীকে টিভিতে দেখে মন ভরে না, তাই সরাসরি দেখতে এসেছি’

আরও বক্তব্য দেবেন ১৪ দলের সমন্বয়ক আমির হোসেন আমু, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন, জাতীয় পার্টির (জেপি) চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন মঞ্জু, বরিশাল সদর আসনের আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী কর্নেল অব. জাহিদ ফারুক শামীম ও বরিশাল সিটি মেয়র আবুল খায়ের আব্দুল্লাহ খোকন সেরনিয়াবাত।

সমন্বয়ক প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক শামীম জানিয়েছেন, জনসভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নৌকার মনোনীত প্রার্থীর পক্ষে ভোট চাইবেন। সভায় বরিশাল বিভাগের ছয় জেলার স্বতন্ত্র প্রার্থীদেরও আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। এ জনসভা হবে ঐতিহাসিক জনসভা। বঙ্গবন্ধু উদ্যোগে ১০ লক্ষাধিক মানুষে ভরে থাকবে। তারা প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানানোর সঙ্গে সঙ্গে কৃতজ্ঞতা জানাবেন। কারণ গত ১৫ বছরে প্রধানমন্ত্রী যে উন্নয়ন করেছেন তা বরিশালসহ দক্ষিনাঞ্চলবাসীর চাওয়া লাগেনি। না চাইতে একাধিক মেগা প্রকল্প সম্পন্ন করেছেন। আরও মেগা প্রকল্প চলমান রয়েছে বলে জানান তিনি।

Source link

Related posts

নড়াইলে কী হয়েছিল সেদিন, ঘটালো কারা?

News Desk

রাজাপুরে মাছ ধরতে গিয়ে জেলে নিখোঁজ, একদিন পর লাশ উদ্ধার

News Desk

এবার বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কের প্রকল্প পরিচালককে অপসারণ

News Desk

Leave a Comment