Image default
বাংলাদেশ

পাগলা মসজিদের দানবাক্সে ২৩ বস্তা টাকা, চলছে গণনা

তিন মাস ১৩ দিন পর কিশোরগঞ্জের পাগলা মসজিদের দানবাক্স খোলা হয়েছে। এবার পাওয়া গেছে ২৩ বস্তা টাকা। এখন চলছে টাকা গণনার কাজ। 

শনিবার (১৯ আগস্ট) সকাল ৮টার দিকে মসজিদের আটটি দানবাক্স খোলা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলা প্রশাসক ও পাগলা মসজিদ কমিটির সভাপতি মো. আবুল কালাম আজাদ।

তিনি জানান, প্রতি তিন মাস পরপর পাগলা মসজিদের আটটি দানবাক্স খোলা হয়। এবার তিন মাস ১৩ দিন পর খোলা হলে ২৩ বস্তা টাকা পাওয়া যায়। এখন চলছে গণনার কাজ।

চার মাস আগে গত ৬ মে দানবাক্সে ১৯ বস্তায় পাওয়া যায় পাঁচ কোটি ৫৯ লাখ ৭ হাজার ৬৮৯ টাকা। সঙ্গে মিলেছে বিভিন্ন বৈদেশিক মুদ্রা, সোনা ও রুপা। এর আগে গত ৭ জানুয়ারি তিন মাস ছয়দিন পর দানবাক্স খোলা হলে ২০ বস্তা টাকা পাওয়া গিয়েছিল। দিনব্যাপী টাকা গণনা শেষে রেকর্ড চার কোটি ১৮ লাখ ১৬ হাজার ৭৪৪ টাকা এবং বৈদেশিক মুদ্রা, সোনা ও রুপা পাওয়া গিয়েছিল। সঙ্গে ডায়মন্ডের গয়নাও পাওয়া গিয়েছিল।

টাকা গণনার কাজে অংশ নিয়েছে মসজিদ ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্য, মসজিদ কমপ্লেক্সে অবস্থিত মাদ্রাসা ও এতিমখানার শিক্ষক-শিক্ষার্থী এবং রূপালী ব্যাংকের কর্মকর্তারা।

দানবাক্সের টাকা গণনার জন্য বস্তায় করে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে মসজিদ পরিচালনা কমিটি সূত্রে জানা গেছে, সকাল ৮টায় জেলা প্রশাসক মো. আবুল কালাম আজাদ, পুলিশ সুপার রাসেল শেখ ও জেলা প্রশাসনের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে মসজিদের দানবাক্সগুলো খোলা হয়। দানবাক্সগুলো খুলে দানের টাকা ২৩টি বস্তায় ভরে আনা হয় গণনার জন্য। বিকাল পর্যন্ত চলবে টাকা গণনার কাজ। তারপর জানা যাবে এবারের দানের মোট টাকার পরিমাণ।

Source link

Related posts

আশ্রয়কেন্দ্র থেকে বাড়ি ফিরছে মানুষ

News Desk

সুনামগঞ্জে স্মরণকালের ভয়াবহ বন্যা

News Desk

২৩০০ কোটি টাকা ব্যয়ে প্রাণ ফিরবে তো বাঙালি নদীতে?

News Desk

Leave a Comment