দেশকে সামনে নিতে হলে নৌকাকে বিজয়ী করতে হবে: কাজী নাবিল
বাংলাদেশ

দেশকে সামনে নিতে হলে নৌকাকে বিজয়ী করতে হবে: কাজী নাবিল

যশোর সদরের ইছালি ইউনিয়ন ও পৌরসভার বিভিন্ন স্থানে নির্বাচনি পথসভা করেছেন যশোর-৩ (সদর) আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত সংসদ সদস্য প্রার্থী কাজী নাবিল আহমেদ। তিনি বলেছেন, ‘আমরা যদি দেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই, তবে আগামী নির্বাচনে অবশ্যই নৌকাকে বিজয়ী করতে হবে। দেশবাসী চায় না, বাংলাদেশ আবারও পর পর দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন হোক।’

বুধবার (২৭ ডিসেম্বর) বিকাল থেকে রাত পর্যন্ত যশোর সদরের ইছালি ইউনিয়নের শুড়ো, কুতুবপুর, রামকৃষ্ণপুর, ইছালি, গাওঘরা, ইছালি ইউনিয়ন পরিষদের সামনের বাজার, রাজাপুর মোড় ও হাশিমপুর বাজারে পথসভা ও বাজারে ভোট চেয়ে লিফলেট বিতরণ করেন। এসব পথসভায় সভাপতিত্ব করেন ইছালি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা তোফাজ্জেল হোসেন।  

রাতে যশোর পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ডের খালধার রোড এলাকায় অনুষ্ঠিত পথসভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা আওয়ামী লীগের কার্যকরী সদস্য কামাল হোসেন।

বিএনপি-জামায়াতকে উদ্দেশ করে কাজী নাবিল বলেন, ‘তারা চায়, বাংলাদেশ হোক সন্ত্রাসের অভয়ারণ্য। ২০০১-২০০৬ সাল পর্যন্ত বিএনপি-জামায়াতের নেতৃত্বাধীন তারেক জিয়া-তারেক রহমানের শাসনামলে বাংলাদেশকে তারা সিরিজ বোমার দেশ করেছিল। সে সময়ে দেশে বাংলা ভাইয়ের উদ্ভব হয়েছিল, জঙ্গিবাদের উত্থান ঘটে, গ্রেনেড হামলা, মানুষ হত্যা ও দেশে জজ হত্যা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেইরকম বাংলাদেশকে ফেরত এনে এখন উন্নয়নের বাংলাদেশ হিসেবে পরিণত করেছেন।’

তিনি উপস্থিত জনতাকে উদ্দেশ করে বলেন, ‘আপনারা কোন বাংলাদেশ চান, উন্নয়নের- শান্তির- সমৃদ্ধির?’ উপস্থিত জনতা সমস্বরে হ্যাঁ সূচক সমর্থন জানালে তিনি বলেন, ‘তাহলে আমাদের সবারই এই মুহূর্তের কাজ হচ্ছে প্রতিদিন এলাকার মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে তাদের বোঝানো। আওয়ামী লীগের প্রত্যেক নেতাকর্মীকে এই কয়দিন একটু বেশি বেশি কাজ করতে হবে। ভোটারদের ভোটকেন্দ্রে নিয়ে যেতে উদ্বুদ্ধ করতে হবে। কোনও ভোটার যেন বাকি না থাকে। ৭ জানুয়ারি এলাকার সব ভোটারকে উদ্দীপনার মাধ্যমে ভোটকেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া এবং তাদের ভোট প্রদানে উৎসাহ দেওয়া একান্ত জরুরি।’

কাজী নাবিল বলেন, ‘মনে রাখবেন, এই নির্বাচন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কিংবা উপজেলা পরিষদের নির্বাচন নয়। এটি সরকার গঠনের নির্বাচন। এটি শেখ হাসিনার নির্বাচন, মুক্তিযুদ্ধের নির্বাচন।’

যশোর-৩ আসনে এক আওয়ামী লীগ নেতা স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করছেন- তাকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, ‘কেউ কেউ এটা ওটা, হাবি-জাবি মার্কা নিয়ে ভোট চাচ্ছেন।’ ৭ জানুয়ারির মার্কা কী জানতে চাইলে সমস্বরে উপস্থিত লোকজন বলেন, নৌকা। ‘শেখ হাসিনাকে আবারও দেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেখতে চাইলে সকলকে নৌকা মার্কায় ভোট দিতে হবে’ বলে তিনি মন্তব্য করেন।

নির্বাচনি পথসভায় কাজী নাবিল আহমেদ

তিনি বলেন, ‘এখানে আমাদের ব্যক্তিগত পছন্দ-অপছন্দ বলে কিছু নেই। এটি হবে আমাদের বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার প্রতি ভালোবাসার নিদর্শন। আওয়ামী লীগের একটাই মার্কা, সেটি হচ্ছে নৌকা।’

শেখ হাসিনাকে পঞ্চমবারের মতো দেশের প্রধানমন্ত্রী করতে হবে উল্লেখ করে এই এমপি বলেন, ‘দেশের সমৃদ্ধি, উন্নয়ন অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে শেখ হাসিনার কোনও বিকল্প নেই।’

পথসভা শেষে সংসদ সদস্য কাজী নাবিল আহমেদ ও তার সঙ্গে থাকা নেতৃবৃন্দ বাজার এলাকার মানুষের সঙ্গে কুশল বিনিময়, নৌকা মার্কায় ভোট প্রার্থনা ও লিফলেট বিতরণ করেন।

বিভিন্ন স্থানে পথসভায় ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা খয়রাত হোসেন, সহ-সভাপতি মেহেদি হাসান মিন্টু, এস এম আফজাল হোসেন, জেলা যুবলীগের সভাপতি সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোস্তফা ফরিদ আহমেদ চৌধুরী, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন বিপুল, মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি লাইজু জামান, শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন, যুব মহিলা লীগের সভাপতি মঞ্জুন্নাহার নাজনীন সোনালী, সন্তোষ দত্ত, ইউপি চেয়ারম্যান ফেরদৌসী ইয়াসমিন প্রমুখ।

Source link

Related posts

ভালো ফলন ও দামে ভুট্টা চাষে ঝুঁকছেন মানিকগঞ্জের কৃষকরা

News Desk

খাগড়াছড়ির মণ্ডপে মণ্ডপে পূজার প্রস্তুতি, রঙ-তুলিতে সাজছে দেবী দুর্গা

News Desk

বেড়েছে পাহাড়ে ঝুঁকিপূর্ণ এলাকায় বসতি

News Desk

Leave a Comment