free hit counter
ঢাকার প্রবেশ মুখে শত শত গাড়ি, কখন-কীভাবে গন্তব্যে পৌঁছাবেন তা কেউই জানে না
বাংলাদেশ

ঢাকার প্রবেশ মুখে শত শত গাড়ি, কখন-কীভাবে গন্তব্যে পৌঁছাবেন তা কেউই জানে না

করোনাভাইরাসের ঊর্ধ্বগতি ঠেকাতে আজ বুধবার থেকে সারাদেশে এক সপ্তাহের সর্বাত্মক লকডাউন শুরু হয়েছে। সরকারি বিধি-নিষেধ কঠোরভাবে প্রতিপালনের জন্য পুলিশের সকল ইউনিট প্রধানকে নির্দেশনা দিয়েছেন বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ। তাই আজ রাজধানী ঢাকাসহ বিভিন্ন এলাকায় কাঠোর অবস্থানে রয়েছে পুলিশ। ঘরের বাইরে প্রত্যেক মানুষকেই পড়তে হচ্ছে পুলিশের জেরার মুখে। সকাল থেকে ফাঁকা রয়েছে ঢাকার বিভিন্ন সড়ক। বন্ধ রয়েছে দোকানপাট শপিং মল।

কিন্তু ঢাকার প্রবেশ মুখগুলোতে সকাল ৬টার পর থেকেই আটকে রয়েছে শত শত গাড়ি। এসব গাড়ির মধ্যে রয়েছে ট্রাক, লরি, জরুরি ঔষধ সরবরাহের গাড়ি এবং ব্যক্তিগত প্রাইভেট কার। গাবতলী, যাত্রাবাড়ি ও আব্দুল্লাহপুর এলাকায় এসব গাড়ির দীর্ঘ যানজট রয়েছে। চালকরা বলছেন, কখন-কীভাবে তারা নির্দিষ্ট গন্তব্যে পৌঁছাবেন; তা জানে না কেউই। কারণ, এসব প্রবেশ মুখ দিয়ে কোনো গাড়িকেই ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না।

তবে পুলিশ বলছে, প্রত্যেক গাড়ির চালকে নিয়ম অনুযায়ী জিজ্ঞাসাবাদ করার পরই ছাড়া হচ্ছে। গাড়ির চাপ রয়েছে প্রচুর, তাই গাড়ির দীর্ঘ যানজট সৃষ্টি হয়েছে।

করোনাভাইরাসের ঊর্ধ্বগতি ঠেকাতে ধৈর্য ধরে বুদ্ধিমত্তার সঙ্গে সরকারি বিধি-নিষেধ প্রতিপালনের জন্য পুলিশ কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছেন আইজিপি। তিনি বলেছেন, খাদ্যপণ্য, ঔষধ, উৎপাদন সামগ্রী ও অন্যান্য জরুরি সেবার যানবাহনের চলাচল নির্বিঘ্ন করতে হবে।

Related posts

রাজশাহীতে ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৪ জনের মৃত্যু

News Desk

ভারতের জন্য উদ্বেগ মিথিলার

News Desk

করোনাযোদ্ধাদের খাবার দিচ্ছেন সালমান খান

News Desk