জাপানের সঙ্গে রাজশাহীর সম্পর্কের নতুন যাত্রা শুরু
বাংলাদেশ

জাপানের সঙ্গে রাজশাহীর সম্পর্কের নতুন যাত্রা শুরু

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ এবং বৈঠক করেছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত ইওয়ামা কিমিনোরি। মঙ্গলবার (১৪ নভেম্বর) বিকালে নগর ভবনে মেয়রের দফতর কক্ষে এই সাক্ষাৎ ও বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

মঙ্গলবার বিকাল ৪টা ১৫ মিনিটে নগর ভবনে আগমনে শিশু শিল্পীদের অংশগ্রহণে নৃত্যের তালে তালে সুরের মূর্ছনায় বর্ণাঢ্য আয়োজনে জাপানের রাষ্ট্রদূতকে বরণ করে নেওয়া হয়। বৈঠকে রাজশাহী মহানগরীর সবুজায়ন, পরিচ্ছন্নতা ও আলোকায়নের ভূয়সী প্রশংসা করেন জাপানের রাষ্ট্রদূত। বৈঠকে রাজশাহীর উন্নয়ন কার্যক্রম এবং ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নিয়ে তথ্যচিত্র ও ভিডিওচিত্রে প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করা হয়। বৈঠক শেষে জাপানের রাষ্ট্রদূতের হাতে আম আকৃতির সম্মাননা স্মারক ও বিভিন্ন উপহার সামগ্রী তুলে দেন রাসিক মেয়র।

বৈঠক শেষে জাপানের রাষ্ট্রদূত ইওয়ামা কিমিনোরি সাংবাদিকদের বলেন, ‘সিটি করপোরেশনের মেয়রের সঙ্গে বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। দীর্ঘ ১৪ বছর পর রাজশাহীতে আমরা আসলাম। আজ থেকে রাজশাহীর সঙ্গে আমাদের নতুন যাত্রা শুরু হলো। আশা করি আমরা বিভিন্ন বিষয়ে কাজ করতে পারবো।’

রাসিক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, ‘প্রায় ১৪ বছর পর রাজশাহীতে জাপানের কোনও রাষ্ট্রদূত এলেন। জাপান বাংলাদেশের পুরনো বন্ধু। স্বাধীনতার সময় থেকে এ পর্যন্ত তাদের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক অত্যন্ত মধুর ও সহযোগিতাপূর্ণ। তারা আমাদের নানা সময়ে কারিগরি ও আর্থিক উভয় ক্ষেত্রে সহযোগিতা এবং প্রজেক্ট বাস্তবায়নের ক্ষেত্রেও কাজ করেন। ঢাকা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের তৃতীয় টার্মিনাল, মাতারবাড়ি কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে শুরু করে বিভিন্ন ক্ষেত্রে জাপান আমাদের সহযোগিতা করে আসছে।

মেয়র বলেন, ‘রাজশাহীর ক্ষেত্রটা ভিন্ন। দীর্ঘদিন গ্যাপ ছিল। তিনি যেটি বললেন, আজ থেকে আমাদের সম্পর্কের নতুন যাত্রা শুরু হলো। ইনশাল্লাহ তাদের সহযোগিতায় জাইকার মাধ্যমে অনেক ডেভেলপমেন্ট কাজ করতে পারবো। এতে আমরা সবাই উপকৃত হবো। স্মার্ট রাজশাহী সিটি গড়ার ক্ষেত্রে আমরা একটা পরিকল্পনা গ্রহণ করেছি। সেটিও জাপান রাষ্ট্রদূতের নিকট উপস্থাপন করা হয়েছে। আশা করছি পর্যায়ক্রমে এগুলো বাস্তবায়ন হবে।’

এর আগে মঙ্গলবার দুপুরে বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত ইওয়ামা কিমিনোরি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) উপাচার্য অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তারের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ ও মত বিনিময় করেন। শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম প্রশাসন ভবনের কনফারেন্স রুমে মত বিনিময়কালে তারা রাবির বিদ্যায়তনিক বিভিন্ন ক্ষেত্রে, বিশেষ করে, উচ্চশিক্ষা ও গবেষণা ক্ষেত্রে জাপানের প্রতিষ্ঠানসমূহের সহযোগিতার বিষয়ে আলোচনা করেন। রাবি উপাচার্য জাপানের বিশ্ববিদ্যালয় ও উচ্চতর গবেষণা প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে রাবির লিংক স্থাপন এবং শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও গবেষক বিনিময়, যৌথ গবেষণা, প্রশিক্ষণ, সম্মেলন ও ওয়ার্কশপ অনুষ্ঠান, রাবি শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের অধিকতর হারে বৃত্তি এবং আর্থিক সহায়তা প্রদানের মাধ্যমে উচ্চশিক্ষা ও গবেষণার সুযোগ সৃষ্টির প্রতি জোর দেন।

এ ছাড়া উপাচার্য ও রাষ্ট্রদূত রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির ইনকিউবেশন সেন্টার, বায়োটেকনোলজি গবেষণা কেন্দ্র, প্রাকৃতিক দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কেন্দ্র ও জাপানিজ স্টাডিজ সেন্টার স্থাপনের সম্ভাব্যতা নিয়েও আলোচনা করেন। এ ছাড়া উভয় দেশের বিশ্ববিদ্যালয় ও উচ্চতর গবেষণা কেন্দ্রসমূহের মধ্যে সমঝোতা স্মারকের মাধ্যমে পারস্পরিক সহযোগিতা বাড়ানোর বিষয়েও মত বিনিময় করেন।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে জাপানি ভাষা শিক্ষার বিষয়ে উপাচার্য আগ্রহ প্রকাশ করলে রাষ্ট্রদূত সে লক্ষ্যে কিছু পরামর্শ দেন। পরে রাষ্ট্রদূত শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ সিনেট ভবনে ‘জাপানে উচ্চশিক্ষা ও কর্মসংস্থানের সুযোগ’ বিষয়ক এক সেমিনারে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন।

 

Source link

Related posts

বিদ্যুতের খুঁটি ভেঙে কারের সঙ্গে সংঘর্ষ ট্রাকের

News Desk

দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথে বেড়েছে ব্যক্তিগত গাড়ির চাপ 

News Desk

বাকেরগঞ্জে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

News Desk

Leave a Comment