জব্বারের বলী খেলাকে ঘিরে বসেছে বৈশাখী মেলা
বাংলাদেশ

জব্বারের বলী খেলাকে ঘিরে বসেছে বৈশাখী মেলা

চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী আব্দুল জব্বারের বলী খেলার ১১৩তম আসর বসছে সোমবার (২৫ এপ্রিল)। খেলায় অংশ নিতে আগ্রহীরা ইতোমধ্যে আয়োজক কমিটির কাছে নাম জমা দিতে শুরু করেছেন। এদিকে জব্বারের বলী খেলাকে কেন্দ্র করে রবিবার (২৪ এপ্রিল) সকাল থেকে লালদিঘী ময়দানের আশপাশের এলাকায় বসতে শুরু করেছে বৈশাখী মেলা। 

আবদুল জব্বার স্মৃতি কুস্তি প্রতিযোগিতা ও মেলা কমিটির সভাপতি ও আন্দরকিল্লা ওয়ার্ড কাউন্সিলর জহর লাল হাজারী বলেন, ‘সোমবার আবদুল জব্বারের বলী খেলা অনুষ্ঠিত হবে। এজন্য সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। তবে এবার লালদিঘী মাঠে নয়, খেলা হচ্ছে জেলা পরিষদ মার্কেটের সামনে খোলা জায়গায়। বিকাল ৩টা থেকে ৫টা পর্যন্ত চলবে বলীখেলা। প্রতিবার পাঁচ দিনব্যাপী মেলার আয়োজন করা হলেও এবার হবে তিন দিন। রবিবার থেকে মঙ্গলবার পর্যন্ত।’

সকালে মেলায় গিয়ে দেখা যায়, নগরের টেরিবাজার সোনালী ব্যাংক মোড় থেকে শুরু করে লালদিঘী ময়দান হয়ে কোতোয়ালি থানা এলাকা পর্যন্ত মেলা বসেছে। অপরদিকে মেলা বসেছে কেসিদে রোডের সিনেমা প্যালেস পর্যন্ত। মেলায় গ্রাম-বাংলার বিভিন্ন লোকজ শিল্পের পাশাপাশি পসরা সাজিয়ে বসেছে শিশুদের খেলনা, গৃহস্থালি সামগ্রী দা, ছুরি ও বটিসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্র। এছাড়া মেলায় নানা ধরনের হস্তশিল্প এবং ফল ও ফুলের গাছ নিয়ে পসরা সাজিয়েছে বিক্রেতারা। সকাল থেকে ক্রেতারা মেলায় আসতে শুরু করেছে।

বিক্রেতা নুরুল ইসলাম জানান, মেলায় ফুল-ফলসহ গাছের চারার চাহিদা বেশি। ক্রেতাদের কাছে আমসহ একটি গাছের দাম হাঁকাচ্ছেন চার হাজার টাকা। তবে তার কাছে ৫০, ১০০ টাকা থেকে শুরু করে ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত ফুল ও ফলের গাছ রয়েছে বলে জানান তিনি।

কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহিদুল কবির জানান, রবিবার থেকে মেলা বসতে শুরু করেছে। সোমবার মেলার পাশাপাশি বলী খেলা অনুষ্ঠিত হবে। মেলার নিরাপত্তায় কোতোয়ালি থানা-পুলিশ প্রস্তুত রয়েছে।

এদিকে জব্বারের বলী খেলা ও বৈশাখী মেলা উপলক্ষে লালদীঘি অভিমুখী সব যানবাহন চলাচল নিয়ন্ত্রণ করবে সিএমপি। চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (জনসংযোগ) শাহাদত হোসেন রাসেল শনিবার (২৩ এপ্রিল) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

সোমবার মেলার পাশাপাশি বলী খেলা অনুষ্ঠিত হবে

মেলা আয়োজক কমিটির সভাপতি কাউন্সিলর জহর লাল হাজারী বলেন, ‘১৯০৯ সালে এই মেলার আয়োজন শুরুর পর কখনও বন্ধ ছিল না। তবে গত দুই বছর করোনা মহামারির কারণে জব্বারের বলীখেলা ও বৈশাখী মেলার ১১১ ও ১১২তম আসর বাতিল করা হয়।’

জানা গেছে, ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনে দেশের যুবকদের সংগঠিত করতে ১৯০৯ সালে চট্টগ্রামের বকশিরহাটের ব্যবসায়ী আবদুল জব্বার সওদাগর চালু করেছিলেন বলী খেলা। এরপর ২০১৯ সাল পর্যন্ত প্রতি ১২ বৈশাখ লালদীঘি ময়দানে অনুষ্ঠিত হতো জব্বারের বলীখেলা। এই খেলাকে কেন্দ্র করে লালদীঘির আশপাশের প্রায় কয়েক কিলোমিটার এলাকাজুড়ে বসে বৈশাখী মেলা। মেলায় কয়েক লাখ মানুষের সমাগম ঘটে।

Source link

Related posts

সাড়ে ৫ মাস ওষুধ খাওয়ানোর পর চিকিৎসক বললেন, ‘আপনার যক্ষ্মা হয়নি’

News Desk

লকডাউনে চাঁপাইনবাবগঞ্জে আম বেচাকেনা চলবে

News Desk

চাঁদপুরের ৪০ গ্রামে ঈদ উদযাপন

News Desk

Leave a Comment