free hit counter
বাংলাদেশ

ছেলের কারণে বাবাকে কুপিয়ে হত্যা

নরসিংদীতে প্রকাশ্যে সাবেক ইউপি সদস্য সুজিত সূত্রধরকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় তিন জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ফার্নিচার দোকানের মিস্ত্রিকে মারধরের ঘটনাকে কেন্দ্র করে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে।

বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) দুপুরে নরসিংদী পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছেন পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজিম। 

গ্রেফতারকৃতরা হলেন ফার্নিচার দোকানের মিস্ত্রি সদর উপজেলার বুদিয়ামারা গ্রামের হযরত আলীর ছেলে মাসুম মিয়া (২৬), একই গ্রামের ফজলুর রহমানের ছেলে শিমুল মাহমুদ (২২) ও নবীপুর গ্রামের রহিম মিয়ার ছেলে সোহাগ মিয়া (২৩)। 

আরও পড়ুন: সাবেক ইউপি সদস্যকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা

এর আগে বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে শহরের হাজিপুর কাঠবাজারে সুজিত সূত্রধরকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। এ সময় ধারালো অস্ত্রের আঘাতে সুজিতের ছেলে সুজন সূত্রধরসহ দুজন আহত হন। এরপর অভিযান চালিয়ে তিন জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

কাজী আশরাফুল আজিম বলেন, ‌‌‘এক সপ্তাহ আগে সাবেক মেম্বার সুজিতের ছেলে সুজনের সঙ্গে মাসুমের কথা কাটাকাটি হয়। এ নিয়ে মাসুমকে মারধর করেন সুজন। এ ঘটনায় সুজনের বাবা সুজিতের কাছে বিচার চান মাসুম। বুধবার সন্ধ্যার পর বিষয়টি নিয়ে সালিশ বৈঠকের কথা ছিল। কিন্তু মাসুম সালিশ বৈঠকে না গিয়ে ১০-১২ জন সহযোগী নিয়ে সুজিত ও তার ছেলের ওপর হামলা চালায়। এ সময় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে সুজিতকে হত্যা করা হয়।’

পুলিশ সুপার বলেন, ‘ঘটনার পর গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে বৃহস্পতিবার সকালে মাসুম, তার সহযোগী শিমুল ও সোহাগকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তাদের কাছ থেকে হত্যায় ব্যবহৃত রক্তমাখা ছুরি ও রক্তমাখা কাঠ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। আসামিদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হবে।’

ছেলের কারণে কেন বাবাকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে জানতে চাইলে পুলিশ সুপার বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে। এখানে অন্য কোনও কারণ আছে কিনা তা খতিয়ে দেখছি আমরা। এরপর বিস্তারিত জানানো হবে।’

Source link