Image default
বাংলাদেশ

ছয় আসনে ৪৭ প্রার্থী, হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের আভাস

বরিশালের ছয়টি সংসদীয় আসনে ১০ রাজনৈতিক দলের ৪৭ প্রার্থী মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। এর মধ্যে সাত প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। বাকিরা বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) জমা দেবেন বলে জানা গেছে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি প্রার্থী বরিশাল-৬ আসনে। এই আসনে ১৪ জন মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন, তার মধ্যে আট জন স্বতন্ত্র প্রার্থী। এর বেশিরভাগই আওয়ামী লীগ নেতা। তবে বরিশাল-৪ আসনে কোনও স্বতন্ত্র প্রার্থী নেই। বরিশাল-২ আসনে জাতীয় পার্টির তিন জন মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। ফলে এবারের নির্বাচনে সবকটি আসনে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে বলে মনে করছেন ভোটাররা।

বুধবার (২৯ নভেম্বর) বরিশাল-১ (গৌরনদী-আগৈলঝাড়া) আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ, বরিশাল-৩ (বাবুগঞ্জ-মুলাদী) আসনে বাংলাদেশের ওয়ার্কাস পার্টির শেখ টিপু সুলতান, জাতীয় পার্টির গোলাম কিবরিয়া টিপু, বরিশাল-৪ (হিজলা-মেহেন্দীগঞ্জ) আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত শাম্মী আহমেদ, বরিশাল-৫ (সদর) আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অব.) জাহিদ ফারুক শামীম, বরিশাল-৬ (বাকেরগঞ্জ) আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেজর জেনারেল (অব.) আব্দুল হাফিজ মল্লিক ও জাসদের মোহাম্মদ মোহসিন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ছয়টি আসনে স্বতন্ত্র ১৪ জনসহ ১০ রাজনৈতিক দলের ৪৭ জন মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। এর মধ্যে আওয়ামী লীগের ছয়, জাতীয় পার্টির ৯, স্বতন্ত্র ১৪, জাকের পার্টির তিন, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপি) চার, ওয়ার্কাস পার্টির তিন, তৃণমূল বিএনপির দুই, বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মুক্তিজোটের দুই, বাংলাদেশ কংগ্রেসের দুই, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের এক ও জাসদের একজন।

বরিশাল-১ আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ। তার সঙ্গে লড়তে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী সেরনিয়াবাত সেকান্দার আলী।

বরিশাল-২ আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী তালুকদার মো. ইউনুস। তার সঙ্গে লড়তে তৃণমূল বিএনপির মো. শাহজাহান সিরাজ, জাকের পার্টির স্বপন মৃধা, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন, মো. জহরুল ইসলাম, জাতীয় পার্টির রঞ্জিত কুমার বাড়ৈ, মো. ইকবাল হোসেন, ব্যারিস্টার আলবার্ট বাড়ৈ, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপি) সাহেব আলী, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের নকুল কুমার বিশ্বাস, আওয়ামী লীগের মনোনয়নবঞ্চিত স্বতন্ত্র মো. মনিরুল ইসলাম ও স্বতন্ত্র এ কে ফাইজুল হক মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন।

বরিশাল-৩ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান সরদার খালেদ হোসেন স্বপন। তার সঙ্গে লড়বেন জাতীয় পার্টি মনোনীত একাদশ জাতীয় সংসদের সদস্য গোলাম কিবরিয়া টিপু, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির টিপু সুলতান, জাকের পার্টির মিজানুর রহমান বাচ্চু, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন, তৃণমূল বিএনপির শাহানাজ হোসেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী ড. মোহাম্মদ আমিনুল হক ও মো. আতিকুর রহমান।

বরিশাল-৪ আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী শাম্মী আহমেদ। তার সঙ্গে লড়তে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী মো. মিজানুর রহমান ও বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মুক্তিজোটের মো. আসাদুজ্জামান। এখানে স্বতন্ত্র প্রার্থী নেই। 

বরিশাল-৫ আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী বর্তমান সংসদ সদস্য কর্নেল (অব.) জাহিদ ফারুক শামীম। তার সঙ্গে লড়তে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন ন্যাশনাল পিপলস পার্টি মনোনীত আবদুল হান্নান সিকদার, জাকের পার্টির মো. আবুল হোসেন, জাতীয় পার্টির মো. ইকবাল হোসেন, বাংলাদেশ কংগ্রেসের মাহতাব হোসেন, বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মুক্তিজোটের মো. আসাদুজ্জামান, স্বতন্ত্র প্রার্থী বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ ও মো. সালাউদ্দিন রিপন।

বরিশাল-৬ আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আব্দুল হাফিজ মল্লিক। তার সঙ্গে লড়বেন ১৪ জন। এর মধ্যে আট জনই স্বতন্ত্র। ইতোমধ্যে ভোটে লড়তে পদত্যাগ করেছেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও বাকেরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শামসুল আলম চুন্নু। বাকিরা হলেন জাসদের মোহাম্মদ মোহসিন, জাতীয় পার্টির একাদশ জাতীয় সংসদের সদস্য নাসরিন জাহান, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির মো. মোশারফ হোসেন, জাকের পার্টির হুমায়ুন কবির সিকদার, বাংলাদেশ কংগ্রেসের মো. মাইনুল ইসলাম, স্বতন্ত্র প্রার্থী বরিশাল জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান খান আলতাফ হোসেন, মো. জাকির হোসেন খান সাগর, মো. নুর এ আলম সিকদার, মো. শাহরিয়ার মিঞা, রাজিব আহম্মেদ তালুকদার, মো. শাহবাজ মিঞা, মো. কামরুল ইসলাম খান।

ভোটাররা বলছেন, নির্বাচনের মাঠে দলীয় প্রার্থী না থাকলেও বিএনপি-জামায়াত সমর্থকদের ভোট পাবেন স্বতন্ত্র প্রার্থীরা। পাশাপাশি জাতীয় পার্টির প্রার্থীরাও ভোট পাবেন। প্রার্থী বেশি হওয়ায় কমবেশি সবাই ভোট কাটবেন। তবে সমর্থকদের বড় অংশের ভোট পাবেন আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থীরা। আবার অনেক স্বতন্ত্র প্রার্থী দলীয় প্রার্থীর ভোট কাটবেন। সে হিসেবে স্বতন্ত্র ও দলীয় প্রার্থীর মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে।

বরিশালের জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, ‘এখন পর্যন্ত ৪৭ প্রার্থী মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। এর মধ্যে বুধবার বিভিন্ন দলের সাত প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। আশা করছি, বৃহস্পতিবার বাকি ৪০ প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দেবেন। কারণ বৃহস্পতিবার মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষদিন। নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়েছি আমরা। এ পর্যন্ত কোনও প্রার্থী মনোনয়নপত্র সংগ্রহ কিংবা জমাদানে বাধার মুখে পড়েননি।’

Source link

Related posts

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়কে স্মার্ট হিসেবে গড়ে তোলার প্রত্যাশা

News Desk

পিকনিকের ট্রলার ডুবে মারা যাওয়া ৮ জনকে একই গোরস্থানে দাফন

News Desk

নরসিংদী রেলস্টেশনে তরুণীকে হেনন্তা: জড়িতদের বিচার দাবি ১৪ সংগঠনের

News Desk

Leave a Comment