free hit counter
বাংলাদেশ

চারের মধ্যে ২ লেনই দখলে, যানজটে ভোগান্তি

ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের চার লেনের মধ্যে দুই লেন রয়েছে পার্কিং করা যানবাহনের দখলে। এতে ময়মনসিংহ মহানগরীর চরপাড়া মোড় থেকে বাইপাস মোড় পর্যন্ত দিনভর যানজট লেগে থাকছে। নিয়মিত দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে চালক ও যাত্রীদের।

মহানগরীর চরপাড়া মোড় থেকে শিকারিকান্দা বাইপাস মোড়, চুরখাই চার রাস্তার মোড়, ত্রিশাল ভালুকা বাসস্ট্যান্ড, জয়নাবাজার, স্কয়ার মাস্টার বাড়ি হয়ে গাজীপুর চৌরাস্তা পর্যন্ত মহাসড়কের চার লেনের মধ্যে দুই লেনে রয়েছে পার্কিং করা গাড়ি। ঢাকা-ময়মনসিংহগামী যানবাহন ছাড়াও শিল্প-কলকারখানার স্টাফ বাস এবং মালামাল পরিবহনের যানবাহন সড়কে দাঁড় করিয়ে রাখতে দেখা যায়। এসব যানবাহন দাঁড়িয়ে থাকায় সড়কে যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে।

ঢাকাগামী এনা পরিবহনের চালক আবুল কাশেম জানান, ‘সড়কের ওপর গাড়ি পার্কিং করে রাখার কারণে বেশিরভাগ সময় যানজট লেগে থাকে। ঢাকা যেতে যেখানে সময় লাগতো তিন ঘণ্টা, সেখানে যানজটের কারণে পাঁচ থেকে ছয় ঘণ্টা সময় লাগছে। এতে যাত্রীরা সময়মতো গন্তব্যে পৌঁছাতে পারছেন না।’

যাত্রী রসুল মিয়া বলেন, ‘সারাবছর মহাসড়কের চার লেনের প্রায় দুই লেন দখলে রাখা হয় যানবাহন পার্কিং করে। এর ফলে যানজট লেগেই থাকে। এ নিয়ে প্রশাসনের তেমন একটা নজরদারি চোখে পড়ে না। নিত্যদিনের যানজট দূর করতে হলে মহাসড়ক থেকে পার্কিং করা গাড়ি দ্রুত সরিয়ে নিতে হবে।’

জেলা ট্রাফিক বিভাগের পুলিশ ইন্সপেক্টর মাসুদ রানা বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘মহাসড়ক থেকে পার্কিং করা যানবাহন উঠিয়ে দিতে জেলা আইশৃঙ্খলা কমিটির সভায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। শিগগিরই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কাজ করবে। এ বিষয়ে পরিবহন মালিক ও শ্রমিকদের সহযোগিতা প্রয়োজন।’

Source link