free hit counter
বাংলাদেশ

গাড়ি চোর চক্রের ১২ সদস্য গ্রেফতার

মহাসড়ক বা রাস্তার পাশে পার্কিং করে রাখা বিভিন্ন যানবাহনের লক ভেঙে চোখের পলকেই গাড়ি নিয়ে সটকে পড়তো তারা। বিভিন্ন ধরনের পাঁচটি গাড়ির যন্ত্রাংশসহ গাড়ি চোর চক্রের ১২ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে জয়দেবপুরের হোতাপাড়া ফাঁড়ি পুলিশ। জয়দেবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহতাব উদ্দিন বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মঙ্গলবার দিবাগত মধ্যরাতে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে জয়দেবপুর থানার ভবানীপুর এলাকার সাইফুল ইসলামের মালিকানাধীন সনিয়া এন্টারপ্রাইজ (ওয়ার্কশপ) থেকে চোর চক্রের ১২ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে হোতাপাড়া পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক (এসআই) রকিবুল ইসলাম বাদী হয়ে বুধবার রাতে জয়দেবপুর থানায় মামলা দায়ের করে। বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টায় তাদের গাজীপুর আদালতে পাঠাবে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হলো– গাজীপুরের জয়দেবপুর থানার ভবানীপুর গ্রামের মোহাম্মদ আলীর ছেলে সাইফুল ইসলাম (৮০), মৃত লাইচ ভূঁইয়ার ছেলে আলম ভূঁইয়া (৪৫), নয়াপাড়া ভবানীপুর (বেগমপুর) গ্রামের শামসুল হকের ছেলে রুবেল (৩২), ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলার জাঙ্গলবাড়ীয়া গ্রামের মৃত জহিরুল হকের ছেলে কবিরুল হক (২০), পিরোজপুরের স্বরূপকাঠি উপজেলার নান্দুহার গ্রামের আব্দুল কালামের ছেলে সুমন (২৮), বরিশালের মুলাদী উপজেলার খাসেরহাট গ্রামের আলমগীর মল্লিকের ছেলে সজীব মল্লিক (২০), হবিগঞ্জ জেলা সদর থানার দানিআলপুর গ্রামের মৃত অরুণ চন্দ্র কুড়ির ছেলে বিধান কুড়ি (৩৫), সুনামগঞ্জ জেলার সদর থানার জাহাঙ্গীরনগর গ্রামের মৃত মহরম আলীর ছেলে মাসুদ মিয়া (২৬), কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার চাউপুর গ্রামের মৃত আব্দুর রশিদের ছেলে শহীদ (৩৫), শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার দোহালিয়া গ্রামের আলাল উদ্দিনের ছেলে জনি মিয়া (২৩), জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলার বীর নন্দনাপাড়া গ্রামের মৃত ফয়েন মণ্ডলের ছেলে সুমন মণ্ডল (২৯), নেত্রকোনার পূর্বধলা উপজেলার পুটিকা গ্রামের আবুল হাশেমের ছেলে রমজান মিয়া (১৯)। তারা গাজীপুরের বিভিন্ন এলাকায় ভাড়া বাসায় থেকে ছিনতাই করতো।

এসআই রকিবুল ইসলাম বলেন, ‘গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারি, ভবানীপুর এলাকার সনিয়া এন্টারপ্রাইজের (ওয়ার্কশপ) পেছনে গ্যাসের সাহায্য চোরাই বিভিন্ন গাড়ির যন্ত্রাংশ খুলে অন্য জায়গায় নিয়ে বিক্রির জন্য পিকআপে বোঝাই করা হচ্ছে। মঙ্গলবার দিবাগত মধ্যরাতে অভিযান চালিয়ে চোরচক্রের সদস্যদের আটক করা হয়। এ সময় তাদের কাছ থেকে গাড়ির ইঞ্জিন, দুটি অক্সিজেন সিডিল্ডার, একটি পিকআপ (ঢাকা মেট্রো-ন-২০-৭৬৭৫), একটি মোটরসাইকেল এবং বিভিন্ন যন্ত্রাংশ উদ্ধার করা হয়।’

জিজ্ঞাসাবাদে আসামিরা স্বীকার করে, পরস্পরের যোগসাজশে তাদের আরও আট-নয় জন সহযোগীসহ দীর্ঘদিন যাবৎ বিভিন্ন স্থান থেকে কৌশলে ট্রাক, পিকআপ ভ্যান, প্রাইভেটকার, সিএনজি অটোরিকশা ও মোটরসাইকেল চুরি করে। এর পর গাজীপুর সদর উপজেলার ভবানীপুর ফকিরা গার্মেন্টসের পশ্চিম পাশে সনিয়া এন্টারপ্রাইজে (ওয়ার্কশপ) গ্যাসের সাহায্যে গাড়ির যন্ত্রাংশ খুলে ঢাকা নারায়ণগঞ্জসহ বিভিন্ন এলাকায় বিক্রি করে আসছে।

Source link