free hit counter
বাংলাদেশ

খুললো নলকা সেতু, উত্তরের ঈদযাত্রা স্বস্তির

ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে উত্তরবঙ্গের ঘরেফেরা মানুষের যাতায়াত নির্বিঘ্ন করতে সিরাজগঞ্জে নবনির্মিত নলকা সেতুর ঢাকাগামী লেন খুলে দেওয়া হয়েছে। এতে উত্তরের ২২ জেলার মানুষের ঈদযাত্রায় ভোগান্তি কমবে, সড়কে স্বস্তি ফিরবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। 

সোমবার (৪ জুলাই) সকালে যানবাহন চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হয় সেতুর ঢাকাগামী লেনটি। এ সময় সাউথ এশিয়ান সাব-রিজিওনাল ইকোনোমিক কো-অপারেশন সাসেক-২-এর প্রজেক্ট ম্যানেজার মো. এখলাস উদ্দিন ও হাটিকুমরুল হাইওয়ে থানার ওসি লুৎফর রহমানসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

এই লেন উন্মুক্ত করে দেওয়ার ফলে উত্তরের ২২ জেলার পুরনো নলকা সেতুর ঢাকাগামী যাত্রায় যে ভোগান্তি হতো তা কেটে যাবে।

সিরাজগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মো. জাহিদুর রহমান বলেন, ‘সড়ক ও জনপথ বিভাগের সচিব নির্দেশনা দিয়েছিলেন চার তারিখে নবনির্মিত নলকা সেতুর ঢাকাগামী লেনটি খুলে দেওয়ার জন্য। এর পরিপ্রেক্ষিতে বাংলাদেশ সেতু বিভাগ আজ নলকা সেতুর ঢাকাগামী লাইনটি খুলে দিয়েছে।’

ঈদযাত্রা সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘মহাসড়কের ছোট ছোট গর্ত এবং ভাঙা জায়গাগুলো মেরামত করা হচ্ছে। পাশাপাশি হাটিকুমরুল গোল চত্বর এলাকায় কিছু নতুন গর্ত সৃষ্টি হয়েছে। মঙ্গলবারের মধ্যে সেগুলোর মেরামত সম্পন্ন হবে। এর সঙ্গে হাইওয়ে পুলিশ ও ট্রাফিক বিভাগের পক্ষ থেকে আমাদের কাছে সংস্কারের কোনও চাহিদা থাকলে সেটাও করা হচ্ছে।’  

হাটিকুমরুল হাইওয়ে থানার ওসি মো. লুৎফর রহমান বলেন, ‘নলকার নবনির্মিত সেতুর ঢাকাগামী লেন খুলে দেওয়ায় আমরা আশা করছি, গত ঈদুল ফিতরের মতো এবারও হাটিকুমরুল গোলচত্বর এলাকাসহ হাইওয়ে থানার আওতাভুক্ত রাস্তায় কোনও যানজট হবে না।’

তিনি আরও বলেন, ‘গত ঈদের মতো এবারের যাত্রা নির্বিঘ্ন করতে মঙ্গলবার (৫ জুলাই) থেকে মহাসড়কে হাইওয়ে পুলিশের পক্ষ থেকে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হবে। এছাড়া মহাসড়কে মোবাইল টিম কাজ করার পাশাপাশি ওয়াচ টাওয়ারের মাধ্যমে যান চলাচল নিয়ন্ত্রণ ও পর্যালোচনা করা হবে। যাতে কোনও চালক এলোমেলো যান না চালাতে পারেন। দ্রুত সরিয়ে নেওয়া হবে দুর্ঘটনা কবলিত যানবাহন।’

সিরাজগঞ্জ ট্রাফিক পরিদর্শক (প্রশাসন) সালেকুজ্জামান খান সালেক বলেন, ‘ঈদে ঘরেফেরা মানুষের যাত্রা সুন্দর ও নিরাপদ করতে ইতোমধ্যে জেলা ট্রাফিক বিভাগ ও জেলা পুলিশের সর্বমোট ৫৬৭ সদস্যকে মোতায়েন করা হয়েছে। তারা সোমবার সকাল ৬টা থেকে মহাসড়কে দায়িত্ব পালন শুরু করেছেন। যান চলাচল স্বাভাবিক রাখতে এবং ঈদে মানুষের যাত্রা নির্বিঘ্ন করতে ট্রাফিক বিভাগ সচেষ্ট রয়েছে।’

এর আগে, শনিবার (২ জুলাই) সিরাজগঞ্জ জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের শহীদ শামসুদ্দিন সম্মেলন কক্ষে সড়কে যানজট নিয়ন্ত্রণ ও নিরাপত্তা জোরদারকরণ বিষয়ক এক মতবিনিময় সভায় এবার ঈদুল আজহার আগেই নলকা সেতুর সব লেন খুলে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছিলেন সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব এবিএম আমিন উল্লাহ নুরী।

তিনি বলেছিলেন, ‘ঈদে উত্তরবঙ্গের প্রায় ১৬ জেলার গাড়ি সিরাজগঞ্জ শহরের মধ্য দিয়ে যাওয়ায় যানজটসহ নানা দুর্ভোগে পড়ে শহরবাসী। জেলা শহরে ঢুকেও রাস্তা ভুলে তালগোল পাকিয়ে এলোমেলো চলাচল করে গাড়িগুলো। এতে সড়ক দুর্ঘটনার শঙ্কা সৃষ্টি হয়।’

এছাড়া হাটিকুমরুল গোল চত্বর থেকে অসংখ্য অনভিজ্ঞ মোটরসাইকেল চালক যাত্রী বহন করে। ফলে বড় যানবাহনগুলো সড়ক দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে। এসব বিষয় সংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্মীদের নজর দেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

প্রসঙ্গত, এর আগে ঈদুল ফিতরের আগে চলতি বছরের ২৫ এপ্রিল বিকালে নবনির্মিত নলকা সেতুর উত্তরবঙ্গগামী লেনটি খুলে দেওয়া হয়। এতে অন্যান্য বছরের চেয়ে গত ঈদে ঘরেফেরা মানুষের ঈদযাত্রা ভোগান্তি মুক্ত হয়েছে।

 

Source link