Image default
বাংলাদেশ

খাল দখল করে রাস্তা নির্মাণ, অনাবাদি কয়েকশ বিঘা জমি

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে উত্তর চরবংশী ইউনিয়নের তিন গ্রামের কয়েকশ বিঘা ফসলি জমি অনাবাদি হয়ে পড়েছে। মঙ্গলবার (১৪ নভেম্বর) রাতে ইউনিয়নের চরলক্ষি ও সিকদারকান্দি গ্রামের বিল পর্যন্ত পানি নিষ্কাশনের একমাত্র খালটি স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য (মেম্বার) সহযোগিতায় ভরাট করে রাস্তা নির্মাণ করায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়।

এ নিয়ে ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ও তহসিলদারের কাছে অভিযোগ করেও কোনও ফল পায়নি ভুক্তভোগী কৃষকরা। অবিলম্বে খালটি পুনঃখনন করা না হলে যেকোনও মুহূর্তে কৃষকদের সঙ্গে সংঘর্ষের আশঙ্কা রয়েছে।

অভিযোগ পাওয়া গেছে, উত্তর চরবংশী ইউনিয়ন পরিষদের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার মো. স্বপনের সহযোগিতায় সিকদারকান্দি গ্রামের সাবেক বিএনপি নেতা মৃত মান্নান সরকারের বাড়ির সামনে প্রভাবশালী জুয়েলের নতুন বাড়িতে যাওয়ার জন্য খালটির একাংশ ভরাট করে রাস্তা নির্মাণ করছেন। এতে পানি জমে তিন গ্রামের কয়েকশ বিঘা জমি অনাবাদি হয়ে পড়লে ব্যবস্থা নেয়নি পরিষদ।

সিকদারকান্দি গ্রামের আলাউদ্দিন ও রাসেল মিয়া অভিযোগ করে বলেন, ‘পানি নিষ্কাশনের একমাত্র খালটি দখলের পর রাস্তা নির্মাণ করায় সারা বছর কয়েকশ বিঘা জমিতে পানি জমে থাকবে। এতে জমিগুলো অনাবাদি হয়ে পড়বে। আমাদের গ্রামসহ পাশের তিনটি গ্রামের মানুষের কয়েকশ বিঘা ফসলি জমি আছে এই বিলে। পানি জমে থাকায় আমরা রবিশস্য বপন করতে পারিনি। এ অবস্থা চলতে থাকলে কৃষক পরিবারের সমস্যা হবে।’

গ্রামের কৃষক জয়নাল, হাসেম আকন্দ ও সাত্তার মিয়ার অভিযোগ, মেম্বার স্বপন ও চেয়ারম্যানের কাছে কয়েকবার অভিযোগ দিলেও তারা ব্যবস্থা নেননি। বরং উল্টো মেম্বার প্রভাবশালী জুয়েল মাঝির পক্ষে ওই খালে বালু দিয়ে ভরাট করে রাস্তা নির্মাণে সহযোগিতা করছেন। অন্যদিকে চরলক্ষি ও সিকদারকান্দি গ্রামের মাসুদ, কবির হোসেন ও আব্দুর রহিম অবিলম্বে খালটি পুনঃখননের দাবি জানান।

চরলক্ষি ও সিকদারকান্দি গ্রামের কয়েকজন কৃষক ও দিনমজুর বলেন, ‘খালটি বেড়িবাঁধ থেকে সিকদারকান্দি হয়ে চরলক্ষি গ্রাম পর্যন্ত দখলদারদের কাছ থেকে উদ্ধার করে খননের দাবি জানাচ্ছি।’

খালটি পুনঃখননের দাবি গ্রামবাসীর

অভিযুক্ত ইউপি সদস্য ও বালু ব্যবসায়ী মো. স্বপন এবং স্থানীয় প্রভাবশালী মো. জুয়েল সিকদার বলেন, ‘শুধু আমরা না, আরও কয়েকজন প্রভাবশালী খালের আংশিক দখল করেছেন। আমরাও খালটি সংস্কার চাই।’

উত্তর চরবংশী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবুল হোসেন হাওলাদার বলেন, ‘চরলক্ষি গ্রামের সিকদারকান্দি এলাকায় রাতে খাল দখল করে বালু দিয়ে রাস্তা নির্মাণের বিষয়ে আমি জানি না। তবে দুই বছর আগে খাল দখল নিয়ে সমস্যা হয়েছিল। ফসলি জমির পানি সময়মতো নিষ্কাশন না হওয়ায় কৃষকরা রবিশস্য বপন করতে পারেননি। এতে তারা আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হন।’ খালটি পুনঃখননের জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনিও।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) অঞ্জন দাশ বলেন, ‘এ বিষয়ে চরলক্ষি গ্রামের কৃষকদের থেকে কেউ জানায়নি। বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নিতে উপজেলা সহকারী কমিশনারকে (ভূমি) নির্দেশ দেওয়া হবে।’

Source link

Related posts

দেশজুড়ে করোনায় মিনিটে শনাক্ত ৭, ঘণ্টায় মৃত্যুও ৭

News Desk

বিএনপি নয়াপল্টনে সমাবেশ করলে পুলিশ কমিশনার যা করণীয় তা-ই করবেন: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

News Desk

তাদের এবারের ঈদও কাটবে হাসপাতালে

News Desk

Leave a Comment