দেশের করোনা সংক্রমণরোধে সাত দিনের লকডাউনের প্রথমদিন ছিল সোমবার। আজ অন্যান্য দিনের মতো চিরচেনা অবস্থা না দেখা গেলেও রাজধানীর সড়কে বাস ছাড়া সবই চলাচল করেছে। আর সেই সঙ্গে সড়কে অনেক মানুষও দেখা গেছে। কেউ দৈনন্দিন কাজে বের হয়েছেন, আবার কেউ জীবন-জীবিকার তাগিদে। তবে গণপরিবহনের চাপ কম থাকায় ট্রাফিক সিগন্যালে কাউকে অপেক্ষা করতে হচ্ছে না। অন্যান্য দিন সকালে রাস্তায় অফিসগামী যাত্রীদের চাপ থাকলেও সেরকম কিছু দেখা যায়নি আজ।

রাজধানীর কয়েকটি এলাকা ঘুরে এসব চিত্র দেখা গেছে। তাছাড়া লকডাউনের মধ্যেও খাবারসহ নিত্যপণ্যের দোকান খোলা ছিল এবং কাঁচাবাজারেও মানুষের সমাগম দেখা গেছে।

গন্তব্যে যেতে ভরসা রিকশা–অটোরিকশা বা নিজের গাড়ি

সোমবার সকাল ছয়টা থেকে শুরু হয়েছে লকডাউন। রাজধানীতে অন্যান্য দিনের তুলনায় সকাল থেকে যান চলাচল ছিল অনেকটা কম। সড়কে গণপরিবহন দেখা যায়নি। তবে সড়কজুড়ে রিকশা ও সিএনজিচালিত অটোরিকশার আধিক্য ছিল। ব্যক্তিগত গাড়িও চলতে দেখা গেছে। মার্কেট বা শপিং মলগুলো ঘোষণা অনুযায়ী বন্ধই আছে।

তবে কিছু কিছু এলাকায় লেগুনায় যাত্রী পরিবহন করতে দেখা গেছে। যে বাসগুলো চলছে, তা কোনো না কোনো অফিসের নিজস্ব ব্যবস্থাপনায়।

জীবন বাজি রেখেও বাসে ওঠার চেষ্টা

সরকার ঘোষিত সাত দিনের লকডাউনের প্রথম দিন সকালে রাজধানীর বাসস্ট্যান্ডগুলোতে আগের মতোই যাত্রীদের ভিড় দেখা গেছে। তবে অন্যান্য সব যানবাহন চলাচল করলেও যাত্রীবাহী বাস না পেয়ে বিপাকে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। এর মাঝেই দুয়েকটি বাসে যাত্রী পরিবহন করায় জীবন বাজি রেখে সেগুলোতে সাধারণ মানুষকে উঠতে দেখা যায়।

লকডাউনে স্বাস্থ্যবিধি মেনেই রাজধানীতে চলছে কারখানা

করোনার ঊর্ধ্বমুখী পরিস্থিতিতে সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী রাজধানীসহ সারাদেশে চলছে লকডাউন। তবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে কারখানা খোলা রাখার সুযোগ দেয়া হয়েছে। এ পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনেই শ্রমিকেরা রাজধানীর বিভিন্ন কারখানায় কাজ করছেন।

সোমবার সকালে রাজধানীর শিল্প এলাকা তেজগাঁওয়ে গিয়ে দেখা যায়, নিয়ম মেনে সব কলকারখানা খোলা রাখা হয়েছে। দেশে চলমান করোনা মহামারিতে লকডাউনের দ্বিতীয় পর্যায়ে শ্রমিকেরা ভোর থেকে কাজে যোগ দিয়েছেন।

রাজধানীর নিউমার্কেট এলাকায় লকডাউন বিরোধীবিক্ষোভ

মহামারী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সারাদেশে চলছে লকডাউন। এমন পরিস্থিতির মধ্যেও রাজধানীর নিউমার্কেট এলাকায় চলছে ব্যবসায়ীদের লকডাউন বিরোধীবিক্ষোভ। সোমবার বেলা ১১টার দিকে নিউমার্কেট এলাকার ব্যবসায়ী ও দোকান মালিকরা সড়কে নেমে বিক্ষোভ করতে থাকেন।

এক সপ্তাহের লকডাউন শুরু

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের প্রকোপ সম্প্রতি আশঙ্কাজনকহারে বেড়ে গেছে। এ প্রেক্ষিতে সোমবার সকাল ৬টা থেকে আগামী সাতদিনের লকডাউন শুরু হয়েছে। আগামী ১১ এপ্রিল রাত ১২টা পর্যন্ত থাকবে এই লকডাউন। এর আগে রোববার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে লকডাউন ঘোষণা ও এই সময়ে পালনের জন্য ১১টি বিধি-নিষেধের কথা জানিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়।

Related posts

শ্যামনগরে বাঁধ ধসে কয়েক গ্রাম প্লাবিত

News Desk

এবার গদখালিতে ফুটেছে টিউলিপ, পিস ১২০ টাকা

News Desk

গুলিবিদ্ধ শ্রমিকদের চিকিৎসা-ক্ষতিপূরণ দেওয়ার দাবি

News Desk

Leave a Comment