Image default
বাংলাদেশ

কৃষকের পাকা ধান কেটে ঘরে তুলে দিলো ছাত্রলীগ

নোয়াখালীর সদর উপজেলার দাদপুর ইউনিয়নের হাকিমপুর গ্রামের কৃষক জসিম উদ্দিন ও মাসুদ মিয়ার ৫৫ শতাংশ জমির পাকা বোরো ধান কেটে দিয়েছেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। পরে ধানগুলো মাড়াই করে কৃষকদের ঘরে তুলে দিয়েছেন তারা। এতে গ্রীষ্মের প্রচণ্ড তাপপ্রবাহের কারণে শ্রমিক সংকটে থাকা দুই কৃষকের মুখে হাসি ফুটেছে। রবিবার (২১ এপ্রিল) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত দাদপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের নেতা ইকবাল হোসেন ২০ নেতাকর্মীকে সঙ্গে নিয়ে ধানগুলো কেটে দেন।

কৃষক জসিম উদ্দিন বলেন, ‌‘অর্থনৈতিক সমস্যার কারণে শ্রমিকদের মজুরি এবার বেশি। অন্যদিকে চলছে গ্রীষ্মের তাপপ্রবাহ। আবার দেশের অন্য জায়গা থেকে শ্রমিক এখনও আসা শুরু করেনি। ঝড়বৃষ্টির কারণে জমির পাকা ধান ঘরে তোলা নিয়ে দুশ্চিন্তায় ছিলাম। ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা খবর পেয়ে আমার ২৫ শতাংশ জমির ধান কেটে মাড়াই করে ঘরে তুলে দিয়েছেন। তাদের এমন কাজে আমি অনেক খুশি হয়েছি।’

আরেক কৃষক মাসুদ মিয়া বলেন, ‘ধারদেনা করে ৩০ শতাংশ জমিতে বোরো ধান আবাদ করেছি। সার, বীজ ও কীটনাশকের বাড়তি দামের কারণে খরচ অনেক বেশি হয়েছে। পাকা ধানগুলো ঘরে তোলা নিয়ে চিন্তায় ছিলাম। গরমের কারণে শ্রমিকরা কাজ করতে রাজি হচ্ছিল না। এ অবস্থায় কোনও প্রতিদান ছাড়াই ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা ধান কেটে মাড়াই করে ঘরে তুলে দিয়েছেন। এজন্য ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের কাছে কৃতজ্ঞ।’

ছাত্রলীগ নেতা ইকবাল হোসেন বলেন, ‘ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সংসদের নির্দেশনা অনুযায়ী জেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে শ্রমিক সংকটের কারণে যেসব কৃষক পাকা ধান ঘরে তুলতে পারছেন না; তাদের ধান কেটে ঘরে তুলে দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছি আমরা। এতে কৃষকের যেমন উপকার হচ্ছে তেমনি আমরাও তাদের পাশে দাঁড়াতে পেরে ভালো লাগছে।’

নোয়াখালী জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. শামছুল হুদা বাপ্পি বলেন, ‘কৃষকের ধান কেটে ঘরে তুলে দেওয়া অবশ্যই ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের মহৎ কাজ। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ দেশের যেকোনো দুর্যোগ, দুঃসময়ে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে। আমরা আগামীতেও সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়াবো।’

Source link

Related posts

বেশি দামে মাংস বিক্রি করায় ৮ হাজার টাকা জরিমানা

News Desk

ডুবেছে ভোলার নিম্নাঞ্চল

News Desk

ফিনল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীর নাশতা ‘জনগণের টাকায়’ কিনা জানতে তদন্ত

News Desk

Leave a Comment