Image default
বাংলাদেশ

ইউএনও লাঞ্ছিতের ঘটনায় আ.লীগ ও যুবলীগের ৫ নেতা বহিষ্কার

গাজীপুরের কালীগঞ্জে তুচ্ছ ঘটনার জেরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সহ কয়েকজন কর্মকর্তা-কর্মচারী ও আনসার সদস্যকে লাঞ্ছিত করার ঘটনায় আওয়ামী লীগ ও যুবলীগের পাঁচ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। তবে ঘটনার উসকানিদাতা মোক্তারপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেনের বিরুদ্ধে এখন পর্যন্ত সংগঠনের পক্ষ থেকে কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।

সোমবার (২ সেপ্টেম্বর) কালীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এইচএম আবু বকর চৌধুরী স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে তাদের বহিষ্কার করা হয়। বহিষ্কৃতদের বিরুদ্ধে অশোভন আচরণ, বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে দলের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করার অভিযোগ আনা হয়েছে।

বহিষ্কৃতরা হলেন- মোক্তারপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আব্দুল হেকিম, সদস্য মো. জাকির হোসেন, ওই ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সদস্য আকরাম হোসেন এবং একই ইউনিয়ন যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. ফয়সাল ফকির ও ওই ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাইদুল। 

এ ব্যাপারে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এইচএম আবু বকর চৌধুরী বলেন, ‘ওই দিনের পুরো বিষয়টি আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতারা দেখেছেন। এ বিষয়ে তারাই সিদ্ধান্ত নেবেন।’

গত ৩০ সেপ্টেম্বর বিকালে শহীদ ময়েজ উদ্দিনের ৩৯তম শাহাদাতবার্ষিকী উপলক্ষে কালীগঞ্জের একটি স্কুল মাঠে স্মরণসভার আয়োজন করে উপজেলা আওয়ামী লীগ। স্মরণসভায় যোগ দিতে দুপুরে মোক্তারপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেনের নেতৃত্বে নেতাকর্মীরা অটোরিকশা ও মোটরসাইকেল নিয়ে উপজেলা পরিষদ চত্বরে জড়ো হন। এ সময় উপজেলা পরিষদ চত্বরে গাড়ি পার্কিং করতে নিষেধ করায় তারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) অফিস ভাঙচুর করে। তাদের হামলায় ইউএনও’র গাড়িচালক রুবেল হোসেন, বিআরডিবি অফিসের কর্মচারী লিটন আহমেদ, প্রকৌশলী অফিসের কর্মচারী রাসেল মিয়া, মাধ্যমিক শিক্ষা কার্যালয়ের প্রোগ্রামার উজ্জ্বল কুমার শীল এবং আনসার সদস্য আকরাম ও রেজোয়ান আহত হন।

হামলাকারীরা কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আজিজুর রহমানকেও লাঞ্ছিত করে। এ ঘটনায় আনসার সদস্য এনায়েতুল্লাহ বাদী হয়ে বেআইনি জনতাবদ্ধে অনধিকার প্রবেশ করে সরকারি কর্মচারীদের মারপিট, সম্পদের ক্ষতি সাধন এবং উসকানি দেওয়ার অভিযোগে থানায় মামলা করেন।

মামলায় মোক্তারপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেনকে প্রধান করে দুই ইউপি সদস্যসহ আওয়ামী লীগের ১৫ নেতাকর্মীর নাম উল্লেখ করা হয়েছে। এ ছাড়াও ওই মামলায় অজ্ঞাত আরও ২৫ জনকে আসামি করা হয়েছে।

Source link

Related posts

২৪ ঘণ্টায় আরও ১৯৮ ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে

News Desk

অনলাইন পাঠদান নিয়ে অসন্তোষ

News Desk

অবরোধে কক্সবাজারে পর্যটন ব্যবসায় ধস, ক্ষতি হাজার কোটি টাকা

News Desk

Leave a Comment