free hit counter
অন্যান্য

মাগুরা থেকে ট্রলারে খুলনা যাচ্ছেন নেতা-কর্মীরা

এদিকে শুক্রবার রাত ১০টার দিকে মাগুরা পৌর এলাকায় নবগঙ্গা নদীর সাতদোহা ঘাট থেকে একটি ট্রলারে খুলনার উদ্দেশে রওনা হয়েছেন বিএনপি নেতা-কর্মীরা। ওই ট্রলারে থাকা ব্যক্তিদের একজন চাউলিয়া ইউনিয়ন ছাত্রদলের সহসভাপতি জুয়েল রানা। তিনি মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, ‘আগে কখনোই এই নৌপথে এভাবে কোথাও যাওয়া হয়নি। রাত দুইটা পর্যন্ত কোথাও বাধা পাইনি। তবে পৌঁছানোর আগ পর্যন্ত একটা আতঙ্ক কাজ করছে।’ ছাত্রদলের ওই নেতা জানান, তাঁদের ট্রলারে কৃষক দল, ছাত্রদল ও বিএনপির শতাধিক নেতা-কর্মী রয়েছেন।

আর শুক্রবার রাত ১২টার দিকে মহম্মদপুর উপজেলার মধুমতী নদীতে ঝামা ও কালিশংকরপুর ঘাট থেকে উপজেলা বিএনপির দুই শতাধিক নেতা–কর্মী নিয়ে দুটি ট্রলার খুলনার উদ্দেশে ছেড়ে গেছে। ওই দুটি ট্রলারের একটিতে থাকা নেতাদের একজন পলাশবাড়িয়া ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি রকিবুল ইসলাম মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, চিড়ে, মুড়ি ও শুকনো খাবার নিয়ে নেতা-কর্মীরা ট্রলারে উঠেছেন।

আরেকটি ট্রলারে থাকা মহম্মদপুর উপজেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক মো. মহিদুল ইসলাম জানান, নেতা-কর্মীদের নিয়ে শুক্রবার সন্ধ্যায় তিনটি ট্রলার নিয়ে ঝামা বাজার থেকে খুলনায় যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন তাঁরা। পুলিশের বাধার মুখে একটি ট্রলার ছাড়াই রওনা হয়েছেন। রাত দুইটার সময় তাঁরা নড়াইলের কালনা ঘাটের কাছাকাছি ছিলেন।

Bednet steunen 2023