free hit counter
দোকানকর্মীকে চড় মারলেন স্ত্রী আর পদ হারালেন রাষ্ট্রদূত
আন্তর্জাতিক

দোকানকর্মীকে চড় মারলেন স্ত্রী আর পদ হারালেন রাষ্ট্রদূত

মাসখানেক আগে কাপড়ের দোকানের এক কর্মীকে চড় মেরেছিলেন দক্ষিণ কোরিয়ায় নিযুক্ত বেলজিয়ান রাষ্ট্রদূতের স্ত্রী। ঘটনার সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন না রাষ্ট্রদূত, তারপরও স্ত্রীর ওই চড়-কাণ্ডে পদ হারাতে হলো তাকে।

সিসিটিভির ফুটেজে দেখা যায়, এক দোকানকর্মীকে চড় মারছেন রাষ্ট্রদূত পিটার লেসোয়ারের স্ত্রী শিয়াং শুয়েকিউ।

বিবিসি জানিয়েছে, ঘটনাটি ঘটেছিল গত ৯ এপ্রিল সিউলের একটি কাপড়ের দোকানে।

দক্ষিণ কোরীয় গণমাধ্যমের খবর অনুসারে, ৬৩ বছর বয়সী শিয়াং প্রায় এক ঘণ্টার মতো দোকানের ভেতর ঘোরাফেরা করেন এবং একাধিক কাপড় পরে ‘ট্রায়াল’ দেন। এরপর তিনি বেরিয়ে যাওয়ার সময় দোকানের এক কর্মী তাকে অনুসরণ করেন।

ওই সময় শিয়াং যে পোশাকটি পরে ছিলেন, সেটিও একই দোকানেরই পণ্য থাকায় কর্মীরা নিশ্চিত হতে চাচ্ছিলেন, পোশাকটি নতুন নেয়া বা এর দাম পরিশোধ করা হয়েছে কি না।

সিসিটিভির ফুটেজে দেখা যায়, রাষ্ট্রদূত-পত্নী শিয়াং ওই কর্মীর পিছু পিছু যান। এরপর আরেক কর্মী এ বিষয়ে হস্তক্ষেপের চেষ্টা করলে তাকে ধাক্কা দেন ও চড় মারেন।

বেলজিয়ান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, এ ঘটনায় শিয়াং শুয়েকিউ পরে ওই দোকানকর্মীর সঙ্গে দেখা করে তার ‘অগ্রহণযোগ্য আচরণ’-এর কারণে ক্ষমা চেয়েছেন।

কিন্তু এরপরও এমন একটি ঘটনার পর পিটার লেসোয়ারকে আর ওই দেশে রাষ্ট্রদূত হিসেবে রাখা ঠিক হবে না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বেলজিয়ামের পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

পিটার প্রায় তিন বছর যাবৎ দক্ষিণ কোরিয়ায় বেলজিয়ামের রাষ্ট্রদূত হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। কিন্তু এবারের গ্রীষ্মের পরে তাকে আর ওই পদে রাখা হবে না বলে ঘোষণা দিয়েছে বেলজিয়ান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

ফেসবুকের এক পোস্টে দূতাবাসের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, পিটার লেসোয়ার নিবেদিতভাবে তার দেশের সেবা করেছেন। তবে ‘বর্তমান পরিস্থিতি’ তাকে আর শান্তিপূর্ণভাবে ভূমিকা পালন করতে দেবে না।

এর আগে, গত এপ্রিলেই স্ত্রীর আচরণের জন্য পিটার নিজেও ক্ষমাপ্রার্থনা করেছিলেন। তবুও শেষরক্ষা হলো না।

‘কূটনৈতিক দায়মুক্তি’র কারণে কোনো দেশে রাষ্ট্রদূত পরিবারের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ দায়ের করতে পারে না স্থানীয় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। কিন্তু শিয়াংয়ের ক্ষেত্রে সেই সুরক্ষা কবচ তুলে নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে বেলজিয়ান দূতাবাস।

গত ৬ মে রাষ্ট্রদূত-পত্নীকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে দক্ষিণ কোরীয় পুলিশ। সম্প্রতি স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন বলে জানিয়েছে বেলজিয়ান দূতাবাস।

Related posts

দক্ষিণ কোরিয়ার ট্যাংকার ছেড়ে দিল ইরান

News Desk

কোরিয়াগামীদের দেশেই ৭ দিনের কোয়ারেন্টিন : টিকায় অগ্রাধিকার

News Desk

বাংলাদেশি নাগরিকদের ওপর দক্ষিণ কোরিয়ার ভিসা নিষেধাজ্ঞা

News Desk